আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > রায় পড়া শুরু, হাইকোর্ট এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার

রায় পড়া শুরু, হাইকোর্ট এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার

২০০৯ সালে পিলখানায় সংঘটিত বিডিআর (বর্তমান বিজিবি) বিদ্রোহ

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

২০০৯ সালে পিলখানায় সংঘটিত বিডিআর (বর্তমান বিজিবি) বিদ্রোহের ঘটনায় করা হত্যা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে হাইকোর্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। রোববার সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

হত্যা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স, সাজা বাতিলে আসামি পক্ষের আপিল এবং আসামিদের খালাসের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের ওপর রায় পড়া শুরু করেছেন হাইকোর্ট।

সকাল ১০টা ৫৬ মিনিটে বিচারপতি মো. শওকত হোসেন, বিচারপতি মো. আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চ মামলার রায় পড়া শুরু করেন।

২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানার বিডিআর সদর দফতরে ৫৭ জন সেনা সদস্যসহ ৭৪ জনকে হত্যার দায়ে ২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান মামলার রায় দেন।

সুপ্রিম কোর্টের মূল গেট, বার কাউন্সিলের পাশের গেট ও হাইকোর্ট মাজার গেটে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে হাইকোর্ট মাজার গেট পর্যন্ত সড়কেও মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশের পুরুষ এবং এবং নারী সদস্য।

সুপ্রিম কোর্টের মূল গেটে আর্চওয়ে গেট বসিয়ে আইনজীবী ও আসামির স্বজনদের ভেতরে প্রবেশ করানো হচ্ছে। গাড়িগুলোতেও করা হচ্ছে তল্লাশি।

কোর্ট চত্বরের অ্যানেক্স ভবনের ২৪ নম্বর কোর্টে রায় ঘোষণা করা হবে। এই কোর্টের কক্ষের বাইরেও সশস্ত্র অবস্থান নিয়েছে পুলিশ। পরিচয়পত্র দেখে পরিচয় নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের ভেতরে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদাদ বলেন, রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। আদালতে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে