আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > ক্ষ্যান্ত হন, মরে যাইনি- নায়করাজের জীবনী নিয়ে বাপ্পারাজ

ক্ষ্যান্ত হন, মরে যাইনি- নায়করাজের জীবনী নিয়ে বাপ্পারাজ

রাজ্জাক ও ছটকু আহমেদ

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

অর্ধশত বছর ধরে চলচ্চিত্রে বিচরণ করেছেন নায়করাজ খ্যাত অভিনেতা রাজ্জাক। অভিনয় দক্ষতা দিয়ে তিনি নন্দিত সব চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। বিখ্যাত এই অভিনেতার বর্ণাঢ্য জীবন কাহিনি নিয়ে বই লিখছেন চিত্রনাট্যকার ও গুণী চিত্রপরিচালক ছটকু আহমেদ।

প্রয়াত রাজ্জাককে নিয়ে বইটির নামকরণ করা হয়েছে ‘নায়করাজ রাজ্জাক: টালিগঞ্জ থেকে ঢালিউড’। আগামী বছরের জানুয়ারিতেই বইটি প্রকাশ করা হবে। বিডিনিউজ পাবলিকেশন লিমিটেড (বিপিএল) আনবে আগামী ফেব্রুয়ারিতে বইমেলার আকর্ষণ হিসেবে। এ বিষয়ে প্রকাশনা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে চুক্তি চূড়ান্ত হয়েছে বলে গেল ৫ সেপ্টেম্বর জানিয়েছেন ছটকু আহমেদ।

বাপ্পারাজ

শেষ পর্যন্ত জানা গেল ছটকু আহমেদকে বই লেখার অনুমতি দেয়নি রাজ পরিবার। নায়করাজ রাজ্জাকের পুত্র বাপ্পারাজ এমনটাই জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা তাকে লেখার জন্য অনুমতি দেইনি। তিনি (ছটকু আহমেদ) কোথা থেকে অনুমতি নিয়ে বাবার জীবনী লিখছেন আমি জানি না।

ক্ষোভ ঝেড়ে বাপ্পারাজ তার ফেসবুকে স্ট্যাটাসও দিয়েছেন। লিখেছেন, আমার বাবার জীবদ্দশায় তাকে নিয়ে যখন অপমানজনক উক্তি চালাচালি হচ্ছিল তখন যারা না শোনার না জানার ভান করে নিশ্চুপ ছিলেন, আজ তাদের উক্তি নিয়ে জবান ছটকু আহমেদ নায়করাজের জীবনী লিখছেন। ভালো প্রজেক্ট নিয়েছেন ছটকু সাহেব। আপনার কলমে তখন কালিহীন ছিল তাই একটু প্রতিবাদও করতে পারেননি। আজ জীবনী লিখছেন বইমেলায় আসবে বলে? ক্ষ্যান্ত হন, ক্ষ্যান্ত হন। আমি এখনো মরে যাইনি।

উল্লেখ্য, ছটকু আহমেদ পরিচালিত প্রথম ছবি ‘নাতবউ’-তে অভিনয় করেছিলেন নায়করাজ রাজ্জাক। সুপারহিট ওই ছবিতে আরও ছিলেন ববিতা, হাসান ইমাম ও প্রবীর মিত্র। এছাড়া ছটকু আহমেদের পারিবারিক প্রডাকশন থেকে নির্মিত আরও তিনটি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন রাজ্জাক।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে