আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > এবার দীপিকার মাথার দাম ১০ কোটি! 

এবার দীপিকার মাথার দাম ১০ কোটি! 

দীপিকা পাড়ুকোন

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’ সিনেমা নিয়ে বিতর্ক যেন কিছুতেই শেষ হচ্ছে না। ‘দীপিকার নাক কেটে দেওয়া হবে’ রাজপুত করণি সেনার এমন হুমকির ঠিক একদিন পর ঘোষণা আসে নায়িকা দীপিকা পাডুকোনের শিরশ্ছেদ করতে পারলে দেওয়া হবে ৫ কোটি রুপি! দেশটির উত্তর প্রদেশের ক্ষত্রিয় সমাজ বলে একটি সংগঠন এ হুমকি দেয়।

৫ কোটির পর এবার ১০ কোটির ফতোয়া দিল বিজেপি। দীপিকা পাড়ুকোন ও সঞ্জয় লীলা বনসালীর মাথার দাম ১০ কোটি হাঁকলেন হরিয়ানা বিজেপির নেতা সূরজ পাল আমু।

সঞ্জয় লীলা বনসালী

টাইমস ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে জানায়, এর আগে মেরঠের ঠাকুর নেতা অভিষেক সোম বনসালী ও দীপিকার মুণ্ডচ্ছেদের জন্য ৫ কোটি টাকা দর হেঁকেছিলেন। রোববার এক সভায় সূরজ পাল আমু বলেন, যে বা যারা দীপিকা ও বনশালীর মুণ্ডচ্ছেদ করতে পারবে, তাদের ১০ কোটি টাকা করে দেওয়া হবে। একইসঙ্গে তাদের পরিবারের সব দায়িত্বও নেব।

শুধু দীপিকা বা বনশালীর উদ্দেশে হুমকি দিয়েই থেমে থাকেননি হরিয়ানার এই বিজেপি নেতা। একইসঙ্গে ছবিতে আলাউদ্দিন খলজীর ভূমিকায় অভিনয় করা রণবীর সিংয়ের পা ভেঙে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি সর্বশক্তি প্রয়োগ করে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি আটকানোর জন্য হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদীকেও। বিজেপির আঞ্চলিক শাখা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই বার্তা দেওয়া হয়েছে।

হিন্দুধর্ম অবমাননা, রাজপুত নারী আর রানি পদ্মিনীর সম্মানহানির অভিযোগ এনে তারা এ ঘোষণা দিয়েছে। ছবিটির কাজ শুরু হওয়ার পর থেকেই ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত ‘পদ্মাবতী’র বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছে বিভিন্ন সংগঠন। এমন বিক্ষোভের মুখে এবার ছবিটির মুক্তি স্থগিত করেছে এর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ভায়াকম এইটিন মোশন পিকচারস। তারা জানায়, পূর্ব নির্ধারিত তারিখ অর্থাৎ ১ ডিসেম্বর ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে না। নতুন তারিখ এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি।

সূরজ পাল আমু

এদিকে ছবিটি নিয়ে এবার ক্ষোভ জানিয়েছেন ভারতের সেন্সর বোর্ড অর্থাৎ সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশনের (সিবিএফসি) চেয়ারম্যান প্রসূন জোশি। ছাড়পত্র পাওয়ার আগেই নির্বাচিত ব্যক্তিবর্গের সামনে ছবিটি প্রদর্শন করায় শনিবার (১৮ নভেম্বর) ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। টাইমস নাউ-এর বরাত দিয়ে আরেক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া খবরটি জানিয়েছে।

ছবিতে ইতিহাস বিকৃত হয় এমন কিছু নেই বোঝাতে কয়েকজন সাংবাদিককে চলচ্চিত্রটি দেখান বানসালি। আর তা করতে গিয়ে সেন্সর বোর্ডের ক্ষোভের মুখে পড়েছেন বানসালি ও ছবির প্রযোজক। তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়ে সিবিএফসি-এর চেয়ারম্যান প্রসূন জোশি বলেছেন, ‘ছাড়পত্র প্রদানের বিদ্যমান বিধিকে পাল্টে দিতে বানসালি ও প্রযোজকরা এ প্রক্রিয়া ব্যবহার করছেন।’

জোশি আরও দাবি করেন, ‘সিবিএফসি দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষ এবং তারা জাতির সর্বোচ্চ আগ্রহকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করে।’

উল্লেখ্য, ‘পদ্মাবতী’কে ‍ঘিরে শুরু থেকেই বিতর্ক চলছে। রাজস্থানে শুটিং চলাকালে উগ্রবাদীরা ছবির সেট ভেঙে দেয়। তাদের হাতে চড়ও খেতে হয়েছিল বানসালিকে। এ কারণে ইউনিট নিয়ে সেখান থেকে চলে আসেন তিনি। কিছুদিন বিরতির পর শুটিং শুরু হয় মহারাষ্ট্রের ইতিহাস বিজড়িত কোলাপুরে। সেখানেও হানা দেয় উগ্রপন্থীরা। তাদের জ্বালিয়ে দেওয়া আগুনে পুড়ে যায় সেট ও দামি পোশাক। এ কারণে বাকি শুটিং শেষ করা হয় কঠোর নিরাপত্তায়। তবে ছবিটি মুক্তি ঠেকাতে একের পর এক হুঁশিয়ারি দেওয়া হচ্ছে।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে