আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > অজিদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে অ্যাশের সঙ্গী ম্যাশ-সাকিব

অজিদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে অ্যাশের সঙ্গী ম্যাশ-সাকিব

প্রতিচ্ছবি ক্রীড়া প্রতিবেদক:

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নামলেই মোহাম্মদ আশরাফুলের সঙ্গী হবেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সাকিব আল হাসান। জাতীয় দলের জার্সিতে সর্বোচ্চ ওয়ােনডে খেলার রেকর্ডের শীর্ষে থাকা অ্যাশকে স্পর্শ করবেন জাতীয় দলের ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক।

ranking-update-of-mashrafe-of-shakib

ওভালে সোমবার সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিটে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নামবে বাংলাদেশ। সেটি হতে যাচ্ছে লাল-সবুজের জার্সিতে মাশরাফি-সাকিবের ক্যারিয়ারের ১৭৫তম ওয়ানডে ম্যাচ। নিষেধাজ্ঞার কারণে দীর্ঘ সময় জাতীয় দলের বাইরে থাকা আশরাফুল ১৭৫টি ওয়ানডে খেলে এতদিন ছিলেন শীর্ষে।

ashraful

আগামী ৯ জুন গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নামলে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ওয়ানডে খেলার রেকর্ডটা নিজেদের করে নিতে পারবেন মাশরাফি-সাকিব।

তবে মাশরাফি ক্যারিয়ারে আরো দুটি ওয়ানডে খেলেছেন। সেটি ২০০৭ সালে আফ্রো-এশিয়া কাপে এশিয়া একাদশের হয়ে আফ্রিকা একাদশের বিপক্ষে। ওই দুটি ওয়ানডেসহ এখন পর্যন্ত মোট ১৭৬টি ম্যাচে ১৫৫৭ রান মাশরাফির। সর্বোচ্চ অপরাজিত ৫১। আর উইকেট ২৩১টি। সেরা ২৬ রানে ৬ উইকেট। ২০০১ সালে নভেম্বরে চট্টগ্রামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথমবার ওয়ানডের জার্সিতে নেমেছিলেন টাইগার অধিনায়ক।

সাকিব ক্যারিয়ারে ১৭৪ ওয়ানডেতে করেছেন ৪৮২৫ রান। সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৩৪ রানের সঙ্গে ৬টি সেঞ্চুরি ও ৩৪টি ফিফটি আছে তার নামের পাশে। বোলিংয়ে সেখানে ২২৪ উইকেট, সেরা ৪৭ রানে ৫টি। ২০০৬ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই প্রথম ওয়ানডে খেলতে নেমেছিলেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

মাশরাফি-সাকিব হয়তো সোমবারই আশরাফুলের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন। তবে পিছিয়ে নেই টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমও, ১৭৩টি ওয়ানডে খেলে কাছাকাছিই আছেন তিনি। তামিম ইকবাল সেখানে ১৭০টি ওয়ানডে খেলেছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে