আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > কৃষকের মুখে ফসলের হাসি

কৃষকের মুখে ফসলের হাসি

হাবিবুর রহমান | মুখে ফসলের হাসি

প্রতিচ্ছবি গাজীপুর প্রতিনিধি:

ক্ষেত ভরা পাকা আমন ধান। ধারন করেছে সোনালী রঙ। বাতাসে বাতাসে ফসলের ঘ্রাণ। গাজীপুরে আমন ফসলের এমন চিত্রে কৃষকের মুখে ফুটে উঠেছে ফসলের হাসি।

পুরোদমে কৃষকেরা গান ধরে কাটছে আমন ধান। এই হেমন্তে কৃষকের ঘরে আমন ধান তোলার আনন্দে তাদের হৃদয় মনে লেগেছে নবান্ন উৎসবের পরশ।

গাজীপুরের উৎসাহী কৃষকেরা এবার জেলার পাঁচ উপজেলায় ৪২ হাজার ১৩৫ হেক্টর জমিতে আমন আবাদ করেছেন বলে এ প্রতিনিধিকে জানান জেলা কৃষি সম্প্রসারন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক কৃষিবিদ জসিম উদ্দিন।

এর মধ্যে কাপাসিয়া উপজেলায় ১১ হাজার ১৭০ হেক্টর, গাজীপুর সদর উপজেলায় ১০ হাজার ১৯০ হেক্টর, শ্রীপুর উপজেলায় ১৩ হাজার ৩১০ হেক্টর, কালিয়াকৈর উপজেলায় ৪ হাজার ৭৩০ হেক্টর ও কালীগঞ্জে ২ হাজার ৭৩৫ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষমাত্রা ধরা হয়।

কৃষকের মুখে ফসলের হাসি

আনন্দে আনন্দে কৃষকেরা কাস্তে নিয়ে ধুমধামে আমন ধান কাটায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। গাজীপুর সদর উপজেলার পূর্ব ডগরী গ্রামের কৃষক মোস্তা মিয়া, মোজাম্মেল হক জানালেন, এবার তারা আমনের আশানুরূপ ফলন পাবে। প্রতিবিঘায় ১৮ থেকে ২০ মন আমন ধানের ফলন হবে বলে তারা আশা করছেন।

স্থানীয় মির্জাপুর বাজারে প্রতিমন ধান বিকোচ্ছে ৯৬০ থেকে ১০০০ টাকায়; এটা তাদের জন্য খুশির খবর বলেও কৃষকেরা জানান।

গাজীপুর সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন আক্তার এ প্রতিনিধিকে বললেন চলতি আমন মৌসুমে অতি বৃষ্টি সত্ত্বেও আমন আবাদের ক্ষতি হয়নি। মাঠ পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তারা সরেজমিন কৃষকদের পরার্মশ দেন বলেও তিনি জানান।

প্রতিবছরের ন্যায় আমন ফসল ঘরে তুলে কৃষকেরা পরিবারের সদ্যসদের নিয়ে উৎযাপন করবে হেমন্তের নবান্ন।

হাবিবুর রহমান/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে