আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > স্যান্ডেলের নিচে ১২ টি সোনার বার, যুবক আটক

স্যান্ডেলের নিচে ১২ টি সোনার বার, যুবক আটক

স্যান্ডেলের নিচে ১২ টি সোনার বার, যুবক আটক

প্রতিচ্ছবি যশোর প্রতিনিধি:

প্রায় ৫০ লাখ টাকা মূল্যের ১২পিস সোনার বার উদ্ধার করেছে যশোর ডিবি পুলিশ। এই ঘটনায় সোনার বার বহনকারী সাইফুল ইসলাম নামে এক যুবককে মোটরসাইকেলসহ আটক করা হয়েছে। সাইফুল শার্শার লক্ষণপুর গ্রামের রাশেদ খানের ছেলে।

রোববার সন্ধ্যায় ঝিকরগাছা উপজেলার কায়েমকোলা মনোহরপুর ঈদগাহ রোড থেকে সোনার বারগুলো উদ্ধার করা হয়।

ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানিয়েছেন, রোববার সন্ধ্যায় এএসআই মুসফিকুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ যশোর কায়েমকোলা রোডের মনোহরপুর বাজারের অদুরে ঈদগাহের সামনে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করেন। এসময় একটি মোটরসাইকেলে (যশোর-হ- ১৪৯২৬০) করে এক ব্যক্তি চেকপোস্টের কাছে পৌছালে তাকে দাড় করান। সে সময় ওই ব্যক্তি ভয়ে কাঁপতে থাকেন।

ঘটণাস্থলে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান, তার পায়ের স্যান্ডেলের ভেতরে বিশেষ কায়দায় লুকানো আছে সোনা। পরে যশোরের একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত হন।

স্যান্ডেলেরতলা খুলে ১২টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। যার ওজন এক কেজি ২শ গ্রাম। মূল্য আনুমানিক ৫০ লাখ টাকা। এই ঘটনায় ঝিকরগাছা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

সাইফুল জানিয়েছেন, ওই সোনার বার কায়েমকোলা বাজারের একটি জায়গা থেকে অল্প বয়সের একটি ছেলে তার স্যান্ডেলে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রেখে সেলাই করে দেয়। তিনি সোনার বারগুলো বেনাপোলের কয়েক ব্যক্তির কাছে তুলে দেয়ার জন্য মোটরসাইকেল নিয়ে যাচ্ছিলেন।

তিনি আরো জানান, রবিউল ইসলাম নামে ভারতীয় এক চোরাচালানীর সাথে তার যোগাযোগ হয়। সেগুলো তার লোকের হাতে পৌছে দেয়ার কথা ছিল। বিনিময়ে মাত্র ৭শ’ টাকা পাবেন। এর আগে সাইফুল ১০/১২ বার বিভিন্ন উপায়ে সোনার বার কায়েমকোলা থেকে বেনাপোলে নিয়ে গিয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

সাজেদ রহমান/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে