আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > ফ্যাশন এন্ড বিউটি > ত্বকের যত্নে ফেসওয়াশ ব্যবহারের নিয়মাবলি

ত্বকের যত্নে ফেসওয়াশ ব্যবহারের নিয়মাবলি

ত্বকের যত্নে ফেসওয়াশ ব্যবহারের নিয়মাবলি

প্রতিচ্ছবি ডেস্ক:

প্রতিদিনের ধূলাবালি আর ময়লা থেকে নিজেকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে আমরা ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে থাকি। এতে করে আমাদের ত্বক ভাল থাকে। কিন্তু মাথায় রাখতে হবে কেমিক্যালসমৃদ্ধ পণ্য ব্যবহারে আপনার ত্বকের ক্ষতিও হতে পারে।

চলুন, একনজরে দেখে নিন সুন্দর ও সুস্থ ত্বকের জন্য কোনটি কার্যকর,

১। সব সময় ত্বকের সঙ্গে মিলিয়ে সঠিক ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন। সম্ভব হলে মাইল্ড ফেসওয়াশ ব্যবহার করুন। এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

২। যাদের ত্বকে অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে, তাঁরা সুগন্ধিযুক্ত ফেসওয়াশ এড়িয়ে চলুন।

৩। মুখ ধোয়ার সময় খুব বেশি ঠান্ডা পানি বা খুব গরম পানি ব্যবহার করবেন না। সামঞ্জস্য বজায় থাকে এমন তাপমাত্রার পানি ব্যবহার করুন।

৪। গরমে অন্তত তিনবার ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন এবং একই ফেসওয়াশ ব্যবহারের চেষ্টা করুন। বারবার ফেসওয়াশের ব্র্যান্ড পরিবর্তন করেবেন না। এটি ত্বকের জন্য খুবই ক্ষতিকর। মুখ ধোয়ার পর পরই রোদে না যাওয়াই ভালো। সানস্ক্রিন লাগিয়ে ২০ মিনিট পর রোদে বের হওয়ার চেষ্টা করুন।

৫। মুখ ধোয়ার সময় খুব বেশি ঘষাঘষি করবেন না। নরম তোয়ালে দিয়ে হালকাভাবে মুখ মুছে নিন। মুখ ধোয়ার তিন মিনিট পর মুখে ময়েশ্চারাইজার লাগান। শুষ্ক ত্বকে ক্রিমসমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ও তৈলাক্ত ত্বকে অয়েল ফ্রি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

৬। মেকআপ তুলতে কখনোই ফেসওয়াশ ব্যবহার করবেন না। প্রথমে মেকআপ রিমুভার অথবা অলিভ অয়েল দিয়ে মেকআপ তুলে নিন। এরপর ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৭। অনেকে ফেসওয়াশের পরিবর্তে দুধ অথবা টক দই ব্যবহার করেন। কিন্তু এটি মুখ পরিষ্কারে ততটা কার্যকর নয়। এমনকি সাবানও মুখ তেমন পরিষ্কার করতে পারে না। এ ক্ষেত্রে ফেসওয়াশ বেছে নেওয়াই ভালো। তবে ত্বকের সঙ্গে মিলিয়ে ফেসওয়াশ বাছাই করুন।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে