আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > তিন পাচারকারীকে এর আগেও গ্রেফতারের চেষ্টা করা হয়েছিল: ডিবি

তিন পাচারকারীকে এর আগেও গ্রেফতারের চেষ্টা করা হয়েছিল: ডিবি

তিন পাচারকারীকে এর আগেও গ্রেফতারের চেষ্টা করা হয়েছিল: ডিবি

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক :

রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকা থেকে গ্রেফতার তিন সোনা পাচারকারী দীর্ঘদিন ধরেই সোনা চোরাকারবারের সঙ্গে জড়িত। এর আগেও কয়েকবার তাদের গ্রেফতার করা চেষ্টা করা হয়েছিল বলে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হল- মো. ফারুক আহম্মেদ, মীর হোসেন এবং মো. শাহিন। বুধবার রাত সোয়া ১০টার দিকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৮০টি (৯.৩৩ কেজি)  সোনার বার উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার গোয়েন্দা পুলিশের উত্তর বিভাগের উপকমিশনার শেখ নাজমুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, গত পরশু রাতে আমার কাছে খবর আসে একটি চক্র বিমানবন্দর থেকে সোনা পাচার করছে। তখন আমি সহকারী কমিশনার মহররমকে সেখানে থাকতে বলি। পরে রাত সোয়া ১০টার দিকে বিমানবন্দরের মক্কা রেস্তোরাঁর সামনে থেকে কাওলাগামী রাস্তার উপর থেকে একটি প্রাইভেট কারসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ

গোয়েন্দা কর্মকর্তা নাজমুল আরো বলেন, গ্রেফতারের পর তাদের কাছ থেকে ৮০টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। যার ওজন ৯.৩৩ কেজি। তারা উদ্ধারকৃত সোনার কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। এছাড়া তিনটি মোবাইলফোন, একটি প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রো গ ২২-১৪৪৯) জব্দ করা হয়।

শেখ নাজমুল আলম বলেন, ফারুক আহমেম্মদ ৮০ পিস সোনার মধ্যে কিছু সোনার বারের মালিক, মীর হোসেন বিমান থেকে সোনা বের করে আনেন এবং শাহিন ওই গাড়ির চালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এ গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তা আরো জানান, ১২৪ কেজি সোনা পাচারের মামলায় ইতোমধ্যে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়া হয়েছে। ওই মামলায় যেসব আসামি ছিল তারা আদালত থেকে জামিনে বেরিয়ে আবারো একই পেশায় যুক্ত হচ্ছে।

ইএ/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে