আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > মাও এর পরেই মর্যাদা পেলেন প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

মাও এর পরেই মর্যাদা পেলেন প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

মাও এর পরেই মর্যাদা পেলেন প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং-এর চিন্তাকে দলীয় গঠনতন্ত্রে অন্তর্ভূক্ত করার প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদন করেছে চীনের কমিউনিস্ট পার্টি। আধুনিক চীনের রূপকার হিসেবে স্বীকৃত মাও সে তুং-এর পর শি জিনপিং হলেন দ্বিতীয় ব্যক্তি যিনি এই মর্যাদা পেলেন।

২০১২ সালে পার্টির র্শীর্ষ পদে আসার পর থেকে ক্রমাগত নিজের অবস্থান সুদৃঢ় করে তুলেছেন শি। পরের বছর চীনের প্রেসিডেন্ট হন তিনি।  কমিউনিস্ট পার্টির চলমান কংগ্রেসের শেষ পর্যায়ে মঙ্গলবার ‘শি জিনপিংয়ের চিন্তা’ গঠনতন্ত্রে স্থান দেওয়া হবে কি না তা নিয়ে ভোট হয়। সেখানে সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে প্রস্তাবটি পাস হয়।

বেইজিংয়ের গ্রেট হলে কমিউনিস্ট পার্টির ওই কংগ্রেসে দুই হাজারের বেশি প্রতিনিধি অংশ নিয়েছে। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির সংবিধানে ‘নতুন যুগে শি জিনপিংয়ের চীনা সমাজতান্ত্রিক চিন্তা’ অন্তর্ভূক্তির জন্য চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।

সব প্রক্রিয়া শেষের পর প্রতিনিধিদের জিজ্ঞাসা করা হয় এ ব্যাপারে তাদের কোনো আপত্তি আছে কিনা, বেইজিংয়ের গ্রেট হল থেকে সাংবাদিকরা বলছেন, এসময় উচ্চস্বরে শোনা যায় ‘না’। এর আগে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির নেতাদের মতাদর্শ কিংবা চিন্তা-ভাবনা দলীয় সংবিধানে জায়গা পেয়েছে। কিন্তু একমাত্র মাও সেতুংয়ের ‘চিন্তা’ চীনা সমাজতন্ত্রের দর্শন হিসাবে বিবেচিত হয়; যা এখন পর্যন্ত দেশটির সমাজতন্ত্রের শীর্ষ আদর্শের জায়গায় রয়েছে।

এর আগে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির দুই নেতার চিন্তাধারা পার্টির গঠনতন্ত্রে তাদের নামসহ মতবাদ আকারে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। এদের একজন মাও সে তুং। অপরজন দেং শিয়াও পিং।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে