আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > লাইফ-স্টাইল > খাবারে অনীহা: শিশুকে দিন মজাদার খাবারগুলো

খাবারে অনীহা: শিশুকে দিন মজাদার খাবারগুলো

খাবারে অনীহা: শিশুকে দিন মজাদার খাবারগুলো [১]

প্রতিচ্ছবি ডেস্ক:

শিশুরা সবসময় আমাদের পরিবারের মধ্যমণি। কিছু সময় বাচ্চরা কিছু খেতে চায়না। না খাওয়ার নানা বাহানায় ব্যস্ত থাকে। এতে করে দেখা দিতে পারে প্রয়োজনীয় পুষ্টির ঘাটতি। তাই চলুন দেখে নেই শিশুদের কয়েকটি মজা খাবারের রেসিপি। যা খুব মজা করেই খাবে আপনার সন্তান। আর পুষ্টি ও নিশ্চিত।

১। সকালের নাস্তায় একটি দারুণ খাবার হচ্ছে চিঁড়া ও দই। কিন্তু সেই এক ঘেয়ে চিঁড়া-দই কতদিন ভালো লাগে? বাচ্চারা এক জিনিস বারবার খেতেও চায়না। পানি দিয়ে ধুয়ে রাখা চিঁড়ার মাঝে ফেটানো দই দিন, সাথে যোগ করুন নারকেল কোরা, বাদাম, শুকনো বা তাজা ফল, এক চিমটি লবণ ও সামান্য দুধ। ব্যাস, তৈরি দারুণ হেলদি ব্রেকফাস্ট!

২। সাধারণ প্যানকেক তৈরিতে অনেক ঝামেলা মনে হয়। ফ্রিজে রাখা রুটি দিয়ে ঝটপট তৈরি করে ফেলুন ব্রেড প্যানকেক। রুটি গুলো দুধে ভিজিয়ে নরম করে একেবারে ভর্তা বানিয়ে নিন। সাথে ডিম ও লবণ যোগ করুন। পাতলা করতে আরও দুধ দিন। এবার আপনার ইচ্ছা মত চিনি, অথবা পেঁয়াজ মরিচ ও মশলা যোগ করে তৈরি করে নিন পাতলা প্যানকেক। স্বাদে কিন্তু দারুণ এই খাবারটি!

৩। নুডুলস তৈরি ঝামেলা লাগে, এদিকে নাস্তায় ভারী কিছু খেতে চান? তাহলে তৈরি করে ফেলুন চিঁড়ার পোলাও। চিঁড়া ধুয়ে নিন। এরপর প্যানে তেল দিয়ে পেঁয়াজ ও কাঁচামরিচ একটু ভেজে একটি ডিম ঝুরি করে নিন। চাইলে সবজি দিতে পারেন। সামান্য জিরা ও মরিচ গুঁড়ো দিয়ে ভাজুন। চিঁড়া দিয়ে দিন। একটু ভেজেই নামিয়ে নিন। তৈরি মজাদার চিঁড়ার পোলাও।

৪। সকালের নাস্তায় ওটস খেতে দিতে পারেন আপনার শিশুকে। কিন্তু সকালে রান্না করার সময় নেই? রাতে ঘুমাবার সময় ওটসের সাথে পরিমাণ মত দই ও দুধ দিয়ে, সাথে সামান্য চিনি ও কিসমিস দিয়ে ভিজিয়ে রাখুন। চাইলে ফ্রিজেও রাখতে পারেন। সারা রাত তরল শুষে ওটস নরম হয়ে যাবে। সকালে আপনি পাবেন একদম তৈরি ব্রেকফাস্ট! চাইলে ফল যোগ করে খেতে দিতে পারেন শিশুকে।

খাবারে অনীহা: শিশুকে দিন মজাদার খাবারগুলো [২]

৫। ডিম আর রুটি খেতে খেতে বিরক্ত হয়ে গেছেন? তৈরি করে ফেলুন দারুণ স্বাদের এক ফ্রিটাটা। একটি বা দুটি ডিমকে লবণ ও দুধ দিয়ে গুলে নিন। এবার প্যানে তেল বা মাখন অল্প আঁচে গরম করে এই ফেটানো ডিম দিয়ে দিন। এবার এই ডিমের ওপরে দিন আপনার যা ইচ্ছা। গাজর, ক্যাপসিকাম, পেঁয়াজ, ব্রকলি দিতে পারেন। সসেজ টুকরো, ফ্রিজে রাখা রান্না কোরা মুরগি বা গরুর মাংস, চিংড়ী, এমনকি ফ্রিজে চিকেন ফ্রাই থাকলে সেটাও টুকরো করে দিতে পারেন। দিতে পারেন চীজ কিংবা রুটি টুকরাও।

এভাবেই সাধারণ খাবারের স্বাদ বদলিয়ে বদলিয়ে আপনার সন্তানের জন্য মজার মজার খাবার তৈরি করতে পারেন।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে