আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > এবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিকে ধমক দিলেন মমতা

এবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিকে ধমক দিলেন মমতা

এবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিকে ধমক দিলেন মমতা

প্রতিচ্ছবি ডেস্ক

ছাত্রছাত্রীদের সামনেই কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী উপাচার্য আশুতোষ ঘোষকে ধমকালেন পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবার তারকেশ্বরে প্রশাসনিক বৈঠকে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী উপাচার্য, আন্তর্জাতিক রসায়ন-বিজ্ঞানী আশুতোষ ঘোষকে তিনি যেভাবে হেনস্থা করেছেন, তাতে সাবেক উপাচার্যদের অনেকেই ব্যথিত।

প্রশাসনিক সভায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সভানেত্রী রুমানা আখতার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করেন, ‘‘কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ৩০০ শিক্ষক-পদ খালি। ফলে ছাত্র-শিক্ষক অনুপাত নষ্ট হচ্ছে।’’

এরপর মূখ্যমন্ত্রী উপাচার্যকে জবাবদিহিতা চাওয়ার সুরে প্রশ্ন করেন, ‘‘সরকারের দিক থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার পরেও আপনি নিয়োগ করেননি কেন? এর ফলে ভোগান্তি হচ্ছে পড়ুয়াদের। সাত দিনের মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া চালু করতে হবে। নইলে কিন্তু আমি ছাত্রছাত্রীদের পক্ষে গিয়ে দাঁড়াব।’’

ashutoshউপাচার্য আশুতোষ ঘোষ বলেন, ‘‘করছি ম্যাডাম।’’

উপাচার্যের ব্যক্তিগত হেনস্থা ছাড়াও এই প্রসঙ্গে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বাধিকারে ফের সরকারি হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠছে। মুখ্যমন্ত্রী এ দিন যে-ভাষা ও ভঙ্গিতে উপাচার্যকে ধমকেছেন এবং নির্দেশ দিয়েছেন, তা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধিকারে হস্তক্ষেপেরই সামিল বলে মনে করছেন শিক্ষক-নেতাদের কেউ কেউ।

উপাচার্যকে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ, ‘‘অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার তৈরি করতে হবে। অন্য কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ফল প্রকাশ করতে হবে। কী করে করবেন, সেটা আপনার বিষয়। কিন্তু করতেই হবে।’’

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) নন-নেট রিসার্চ স্কলারদের বৃত্তি বন্ধ করে দিয়েছে বলে এক শিক্ষার্থীর অভিযোগে মুখ্যমন্ত্রী আশ্বাস দেন, ‘‘আমরা ইউজিসি-কে একটা স্ট্রং লেটার দেবো। আমরা এর বিরোধিতা করবো। প্রয়োজন হলে আমাদের যে-মেধাবৃত্তি আছে, তা থেকে দেওয়া যেতে পারে।’’

প্রকাশ্যে এ ভাবে হেনস্থা হওয়ার পরে উপাচার্য আশুতোষ ঘোষের পদত্যাগ নিয়েও গুঞ্জন উঠেছে। তবে উপাচার্য এ প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করেননি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে