আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > শততম ম্যাচের মাইলফলকের সামনে কোচ জিনেদিন জিদান

শততম ম্যাচের মাইলফলকের সামনে কোচ জিনেদিন জিদান

সেঞ্চুরির মুখোমুখি কোচ জিনেদিন জিদান

প্রতিচ্ছবি স্পোর্টস ডেস্ক:

আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছিল জিনেদিন জিদান আর  তারকায় ঠাঁসা স্প্যানিশ জায়ান্ট ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদকে নিয়ে। সময়টা ২০১৬ সালের ৪ জানুয়ারি। রিয়াল মাদ্রিদের ঘোর দুঃসময়ে রাফায়েল বেনিতেজের জায়গায় কোচ হয়ে এলেন জিনেদিন জিদান।

রিয়াল সমর্থক থেকে ফুটবল বোদ্ধা। সবার চোখেমুখে তখন একরাশ বিস্ময়। ফুটবল কিংবদন্তী জিদান রিয়াল মাদ্রিদের সফল তারকাদের একজন হতেই পারেন; তাই বলে কোচ? ক্লাব সভাপতি কি একটু বেশিই ঝুঁকি নিয়ে ফেললেন না?

অনেকে তো বলেই ফেলেছেন, রিয়াল মাদ্রিদের ব্যর্থতা ঢাকতে এবং সমালোচনা থেকে বাঁচতে চাইছেন পেরেজ। খুব বেশিদিন জিদানকে দেখা যাবে না রিয়ালে।

৬৪৯ দিন পর, ফ্রেঞ্চম্যান জিদান প্রমাণ করেছেন তার যোগ্যতা। মেধা দিয়ে উজ্জ্বল করে দিয়েছেন রিয়াল সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের মুখটিকে।

দেখতে দেখতে পেরিয়ে গেছে ৯৯টি ম্যাচ, শনিবার গেটাফের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সেঞ্চুরিয়ান কোচের তালিকায়ও নাম লিখিয়ে ফেলবেন জিনেদিন জিদান। কোচিং ক্যারিয়ারে রিয়াল মাদ্রিদকে তিনি কি দেননি!

৯৯ ম্যাচের মধ্যে জিদানের অধীনে টানা ৪০ ম্যাচে পরাজয়ের স্বাদ পায়নি রিয়াল। হ্যাঁ, ভুল শুনছেন না, টানা ৪০ ম্যাচ! ঘরের মাঠে রিয়ালের টানা ১২ জয়ের রেকর্ডও এই ফ্রেঞ্চম্যানের অধীনে।

আরও আছে, জিদানের অধীনে কতটা ছন্দে সময় কাটিয়েছেন রোনালদো-বেলরা, সেটা বোঝা যাবে গোল করার হার দেখলে। তার সময়ে টানা ৭৪টি ম্যাচে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়েছে রিয়াল।

কোচিং ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত সাতটি ট্রফি জিতেছেন জিদান। ইতিহাসের প্রথম কোচ হিসেবে তিনি জিতেছেন টানা দুটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা। রিয়াল জিতেছে দুটি উয়েফা সুপার কাপ, একটি ক্লাবি বিশ্বকাপ, সুপারকোভা ডি এস্পানা এবং একটি লা লিগা ট্রফি।

এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে