আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > বিচ্ছেদের হিড়িকে প্রশ্নবিদ্ধ শোবিজ অঙ্গন

বিচ্ছেদের হিড়িকে প্রশ্নবিদ্ধ শোবিজ অঙ্গন

বিচ্ছেদের হিড়িকে প্রশ্নবিদ্ধ শোবিজ অঙ্গন

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

আজকাল বিনোদন অঙ্গনে তারকাদের বিবাহ বিচ্ছেদ যেন খুব সহজ আর সাধারণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। দিন দিন বাড়ছে এর সংখ্যা। বিয়ের মাস-বছর না পেরুতেই দ্বন্দ্ব, কলহ শেষতক বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তে পৌঁছে যাচ্ছেন এ অঙ্গনের অনেকেই। ফলে তারকাদের প্রতি আস্থা হারাচ্ছেন দর্শক-শ্রোতারা। এমনকি ছাড়াছাড়ির ফলে তারকাদের নিয়ে রীতিমতো সমালোচনার, নেতিবাচক মন্ত্মব্য এবং বিরূপ প্রভাব তৈরি হচ্ছে ভক্ত-দর্শক-শ্রোতাদের মধ্যে।

অথচ এদের অনেকের মধ্যেই বিয়ের আগে থাকে দীর্ঘদিনের গভীর প্রেম ও বন্ধুত্ব। বিয়ের পরই সেই সম্পর্কে ফাটল শুরু হয়। দুজনের মধ্যে তৈরি হয় দূরত্বের দেয়াল। আজকাল শোবিজ অঙ্গনের এসব দাম্পত্য কলহ ও বিচ্ছেদ পাঠকদের জন্য প্রায় নিয়মিতই রসালো সংবাদ হয়ে ধরা দিচ্ছে। এই বিচ্ছেদে অনেক তারকাই তীব্রভাবে নিন্দিত হচ্ছেন। অনেকেই হারাচ্ছেন স্বপ্নের ক্যারিয়ার।

তারকাদের এমন ধারাবাহিক বিচ্ছেদের বিষয়টি প্রশ্নবিদ্ধ করছে শোবিজ অঙ্গনকে। কেন একের পর এক বিচ্ছেদের সংখ্যা বাড়ছে এমন প্রশ্নই এখন শোনা যাচ্ছে সর্বত্র। এভাবে বিচ্ছেদের সংখ্যা বাড়তে থাকলে তারকাদের প্রতি সাধারণ মানুষের নেতিবাচক ধারণাই সৃষ্টি হবে বলে অনেকে মনে করছেন।

গেল কয়েক বছরের চেয়ে এই বছর তারকাদের বিচ্ছেদের সংখ্যা একটু বেশি বলতে হয়। সম্পর্কের মধ্যে অবিশ্বাস, মতবিরোধ, সন্দেহ এই কয়েকটি কারণেই তারকাদের বিচ্ছেদ ঘটছে বলে অনেকে অভিমত প্রকাশ করেন। আবার অনেক নারী তারকা লোভে পড়ে ব্যবসায়ীদের বিয়ে করছেন। পরে স্বার্থসিদ্ধি না হলে ডিভোর্সের পথেই হাঁটছেন বলে শোবিজ সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

গেল বছরের শেষের দিকে ক্লোজআপ তারকা সালমাকে দিয়ে শুরু এই বিচ্ছেদ। গত ২০শে নভেম্বর রাজধানীর ধানমন্ডির একটি রেস্তরাঁয় দুই পরিবারের উপস্থিতিতে সালমা ও শিবলী সাদিকের তালাকের কার্যসম্পন্ন হয়েছে। ২০১১ সালের ২৬শে জানুয়ারি বর্তমান সংসদ সদস্য শিবলী সাদিকের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন কণ্ঠশিল্পী সালমা।

সালমার বিচ্ছেদের রেশ না কাটতেই বিচ্ছেদের শিরোনামের আসেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী হাবিব ওয়াহীদ। স্ত্রী রেহানের সঙ্গে পাঁচ বছরের সংসারের ইতি টানেন তিনি। অনেক তরুণ-তরুণীর আইকন ছিলেন তাহসান ও মিথিলা দম্পতি। কিন্তু সেই দম্পতির সংসারও এখন আর নেই। গেল ২০শে জুলাই দু’জনের আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ ঘটে। ২০০৬ সালের ৩রা আগস্ট এ দুই তারকা ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন।

এদিকে গেল ২১শে আগস্ট রাজধানীর মোহাম্মদপুরের কাজী অফিসে স্বামী নির্মাতা রাফসান আহসানের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক ডির্ভোস হয় অভিনেত্রী-মডেল স্পর্শিয়ার। ২০১৫ সালের ১লা অক্টোবর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তারা। এই অভিনেত্রীর ডিভোর্সের পরই গুঞ্জন ওঠে পপ গায়িকা মিলার ডিভোর্সের বিষয়টি। প্রথমে এটিকে মিলা গুঞ্জন বলেই উড়িয়ে দেন। অবশেষে সেই গুঞ্জন সত্যি হলো। ৬ই অক্টোবর শুক্রবার রাতে মিলা নিজের ফেসবুক পেইজ ও ভেরিফায়েড ফ্যান পেজে এক পোস্টে লেখেন, হ্যাঁ, আমি ডিভোর্স দিতে যাচ্ছি। মিলার বিচ্ছেদের খবর শেষ হওয়ার আগেই ৮ই অক্টোবর নিজের বিচ্ছেদের খবর জানালেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী নোভা।

অবশ্য নির্মাতা রায়হান খানের সঙ্গে তিনি গত ২৬শে আগস্ট আনুষ্ঠানিকভাবে সংসার জীবনের ইতি টানেন বলে জানান। ২০১১ সালের ১১ই নভেম্বর তারা দুজন বিয়ে করেছিলেন। চলতি বছরে বিচ্ছেদের তালিকায় আরো আছে শখ-নিলয়ের নাম। দীর্ঘদিন প্রেম করার পর ২০১৬ সালের ৭ই জানুয়ারি এই দম্পতি বিয়ে করে মিডিয়া অঙ্গনে বেশ চমক সৃষ্টি করেছিলেন।

এদিকে সম্প্রতি লাক্স তারকা বাঁধনের ডিভোর্সের বিষয়টিও বেশ আলোচনায় এসেছে। বাঁধন তার স্বামী মাশরুর সিদ্দিকী সনেটের বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন। সাম্প্রতিক সময়ের বিচ্ছেদগুলো ছাড়াও তারকাদের বিচ্ছেদের মধ্যে অন্যতম একটি হলো হৃদয় খান ও সুজানার বিচ্ছেদ। ২০১৫ সালে ৫ বছরের বড় সুজানাকে ভালোবেসে বিয়ে করেন হৃদয় খান। বিয়ের কয়েক মাস না যেতেই তাদের বিচ্ছেদ হয়।

কিন্তু কি কারণে কেন এই বিচ্ছেদ? আজো তাদের দুজনের কারো কাছ থেকে জানা যায়নি। তবে এদিকে হৃদয় খান আবারো বিয়ে করেছেন। গেলো কয়েক বছরে আরো বিচ্ছেদ ঘটেছে টিভি অঙ্গনের জনপ্রিয় দুটি মুখ মনির খান শিমুল ও নাদিয়ার। এছাড়া সোহানা সাবা ও সারিকাসহ অনেকেই স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটিয়ে এখন একাকী জীবনযাপন করছেন।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে