আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রাজনীতি > আগে সরকার পতন, পরে নির্বাচন: গয়েশ্বর

আগে সরকার পতন, পরে নির্বাচন: গয়েশ্বর

আগে সরকার পতন, পরে নির্বাচন

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সহায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা না করা পর্যন্ত দেশে কোন নির্বাচন নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। সোমবার রাজধানীর সেগুন বাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোট আয়োজিত ‘সর্বোচ্চ আদালত ধ্বংসের নীল নকশার বিরুদ্ধে’ শীর্ষক প্রতিবাদ সভায় এ কথা বলেন তিনি।

এসময় জনগণের মধ্যে নির্বাচনের কোনো উৎসাহ নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো আর একতরফা নির্বাচন করতে পারবেন না। জনগণ যেহেতু তার ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারছে না তাই নির্বাচনের আগে আমাদেরকে এই সরকারের পতন ঘটাতে হবে।

বিএনপির নেতা গয়েশ্বর আরও বলেন, একটি নিরপেক্ষ ও সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন করার সৎ সাহস সরকারের নেই। এখন পরাজয়ের আশঙ্কা সরকারের মনে কাজ করছে।

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার ছুটি প্রসঙ্গে বিএনপির এই নেতা বলেন, যে প্রক্রিয়ায় প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহাকে ছুটি দেয়া হয়েছে, তার মাধ্যমে সরকার গোটা বিচার ব্যবস্থার ওপর নগ্ন হস্তক্ষেপ করেছে।

এসকে সিনহার ছুটির দরখাস্তে বানান ভুল এবং স্বাক্ষর জাল দাবি করে গয়েশ্বর বলেন, ‘২ অক্টোবর যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তাদের মনে রাখতে হবে আপাতত এ যাত্রায় সফল হলেও পরিণতি কিন্তু ভয়াবহ।’

সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ মো: সেলিম ভুইয়ার সভাপতিত্বে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আব্দুস সালাম, বিএনপি নেতা আব্দুল আওয়াল, সহতথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো: জাকির হোসেন, দফতর সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, জিনাপের সভাপতি মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, দেশ বাচাও মানুষ বাচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে