আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ বাছাইয়ে মিস আর্থের ক্ষোভ!

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ বাছাইয়ে মিস আর্থের ক্ষোভ!

priyoti-iner

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়েছে চট্টগ্রামের মেয়ে জান্নাতুল নাঈম এভ্রিলকে। আগামী নভেম্বরে চীনে অনুষ্ঠেয় ৬৭তম ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন তিনি। তবে বিচারকদের মধ্য থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, জান্নাতুল নাঈম এভ্রিলকে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হিসেবে বিজয়ী নির্বাচন করেননি। তারা বিজয়ী নির্বাচিত করেছিলেন- যিনি রানার আপ হন, সেই জেসিয়া ইসলামকে।

missworldfinal3-1

কিন্তু আয়োজকদের জালিয়াতির কারণে নাকি বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে এভ্রিলের নাম। আর এটা নিয়েই বর্তমানে চলছে আলোচনা ও সমালোচনা। আর এই আলোচনায় সবর রয়েছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম গুলো। সমালোচনার ঝড় বইছে ফেসবুকেও। যা এখনও চলমান।

এই বিষয়টা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মডেল-অভিনেত্রী ‘মিস আয়ারল্যান্ড’ মাকসুদা আক্তার প্রিয়তিও। তিনি তার ফেসবুকে লেখা এক স্ট্যাটাসের বলেছেন, “২০১৫ সালে আন্তর্জাতিক সুন্দরী প্রতিযোগিতা মিস আর্থ চলার সময়েও আমার একই অভিজ্ঞতা হয়েছিল। আয়োজক-বিচারকেরা বিজয়ী তালিকা থেকে আমার নাম বাদ দিয়েছিল এবং পুরো তালিকাটাই বদলে ফেলেছিল। (কিছুই নতুন নয়। সবাই এরইমধ্যে আমার গল্পটা জেনে গেছে)

যাই হোক, বেশিরভাগ সময়ই সুন্দরী প্রতিযোগিতায় আয়োজকরা প্রভাব কিংবা নিয়ন্ত্রণ খাটানোর চেষ্টা করে। বিচারকদের রায়কে অগ্রাহ্য করে। এটা অনেকবারই হয়েছে।

কিন্তু এক্ষেত্রে (বাংলাদেশের মিস ওয়ার্ল্ড আয়োজন) আমি ভাবছি, যেহেতু এটা প্রথম আয়োজন, কীভাবে তারা (আয়োজক কর্তৃপক্ষ) এত বড় ঝুঁকি নিতে পারে এমন কাউকে বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতায় পাঠাতে, যে তার দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার যোগ্যই নয়, যে পদক জিতেছে তার যোগ্য সে নয় এমনকি তার দেশের মানুষ তাকে সেরা সুন্দরীই মনে করে না।

1-805

যাই হোক, চূড়ান্ত ঘোষণার আগে তারা (আয়োজক) বিচারকদের কাছে কয়েকটি নাম প্রস্তাব করতে পারতো যারা জাতীয় এ পদকটি জেতার জন্য তুলনামূলকভাবে বেশি যোগ্য। সুনামের জন্য হলেও, এই শিল্পে নিজেদের ভবিষ্যতের জন্যও।

আমি অবশ্যই বলবো, আয়োজকরা অনেক বড় ভুল করেছে। যদি কেউ আন্তর্জাতিক সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজকদের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করে তাহলে তারা নিজেদের লাইসেন্স হারাবে যেটি দেশের জন্য লজ্জা বয়ে নিয়ে আসবে। আর আমরাও এটা আশা করি না।”

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য প্রাথমিকভাবে প্রায় ২৫ হাজার আগ্রহী নাম নিবন্ধন করেন। তাদের মধ্য থেকে সেরা ১০ জনকে বাছাই করা হয়। তারা হলেন- রুকাইয়া জাহান, জান্নাতুল নাঈম, জারা মিতু, সাদিয়া ইমান, তৌহিদা তাসনিম, মিফতাহুল জান্নাত, সঞ্চিতা দত্ত, ফারহানা জামান, জান্নাতুল সুমাইয়া ও জেসিকা ইসলাম।  এতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন এভ্রিল। প্রথম রানার আপ হয়েছেন জেসিয়া ইসলাম, দ্বিতীয় রানার আপ হন জান্নাতুন সুমাইয়া।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে