আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রোহিঙ্গা সংকট > রোহিঙ্গাদের বাড়িতে আগুন দেয়ার প্রমাণ মিললো স্যাটেলাইট ছবিতে

রোহিঙ্গাদের বাড়িতে আগুন দেয়ার প্রমাণ মিললো স্যাটেলাইট ছবিতে

রোহিঙ্গাদের বাড়িতে আগুন দেয়ার প্রমাণ মিললো স্যাটেলাইট ছবিতে

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের বাড়িঘরে যে আগুন দেয়া হচ্ছে তা দেশটির সেনাবাহিনীই দিচ্ছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

বিবিসি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘স্যাটেলাইট থেকে তোলা রাখাইন রাজ্যের অনেক ছবি বিশ্লেষণ করে অ্যামনেষ্টি জানায়, সেখানে গত তিন সপ্তাহে ৮০টির বেশি স্থানে বিশাল এলাকা পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এবং তাদের সহযোগী স্থানীয় গোষ্ঠীগুলো এই কাজ করছে।’

পশ্চিমের রাখাইন রাজ্যের প্রায় ৩০ শতাংশ রোহিঙ্গা গ্রাম এখন সম্পূর্ণ খালি, খোদ মিয়ানমার সরকার এ তথ্য দিয়েছে বলে জানায় বিবিসি।

রোহিঙ্গা গ্রামগুলোতে হামলার বর্ণনায় অ্যামনেস্টির পক্ষ থেকে বলা হয়, মিয়ামারের সেনাবাহিনী এক একটি গ্রাম প্রথমে ঘিরে ফেলছে, পলায়নরত গ্রামবাসীর উপর নির্বিচারে গুলি ছুড়ছে এবং তাদের বাড়িঘরে আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে।

 অ্যামনেস্টির একজন কর্মকর্তা তারানা হাসান বলছেন: এটা পরিষ্কার যে, সুপরিকল্পিতভাবে এসব সহিংসতা চালানো হচ্ছে। কেননা যেসব জায়গায় আগুন দেয়া হয়েছে সেই জায়গাগুলোর আগের চার বছরের স্যাটেলাইট ছবি বিশ্লেষণ করে তারা কোন অগ্নিসংযোগের ঘটনা দেখতে পাননি। বেছে বেছে রোহিঙ্গা গ্রামগুলোতেই আগুন দেয়া হয়েছে

এটা নিশ্চিতভাবেই ‘মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ’।

স্যাটেলাইটের ছবিতে ২৫ অগাস্টের পর লোকবসতি আছে এমন অন্তত ৮০টি জায়গায় বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ড সনাক্ত হয়েছে বলে জানায় অ্যামনেস্টি।

গত ২৫ আগস্ট থেকে এই পর্যন্ত ৩ লাখ ৮৯ হাজার রোহিঙ্গা সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। মিয়ানমার সরকার জানিয়েছে, রাখাইন রাজ্যের কমপক্ষে ৩০ শতাংশ রোহিঙ্গা-অধ্যুষিত গ্রাম এখন জনশূন্য।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে