আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > আমি অসুস্থ, অর্থাভাবে চিকিৎসা বন্ধ!

আমি অসুস্থ, অর্থাভাবে চিকিৎসা বন্ধ!

kolpona

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

অসুস্থ  চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী খালেদা আক্তার কল্পনা। অর্থাভাবে চিকিৎসা প্রায় বন্ধের পথে। তার ডান চোখে গ্লুকোমা, রেটিনায় রক্তপাত ও কর্নিয়ার আলসার থেকে ইনফেকশন হয়ে মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এখন শুধু বাম চোখ ভরসা।

জানা গেছে, ঢাকায় চিকিৎসা নিয়েছিলেন কিন্তু দেশের চিকিৎসকদের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য চেন্নাই থেকে ছানি অপারেশন করান তিনবার। এরপর কলকাতার শঙ্কর নেত্রালয়ে প্রতি চার মাস পর চিকিৎসা করালেও ডায়াবেটিস থাকায় এই চিকিৎসা দীর্ঘস্থায়ী ও ব্যয়বহুল হয়ে পড়েছে। যা তিনি বহন করতে পারছেন না।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী খালেদা আক্তার কল্পনা পাঁচ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। অসংখ্য টেলিভিশন নাটকেও অভিনয় করেছেন। জীবনের শেষপ্রান্তে এসে অর্থকষ্টে ভালো চিকিৎসা করাতে পারছেন না।

খালেদা আক্তার কল্পনা বলেন, ‌`সামনে ২৩ অক্টোবর চিকিৎসা নিতে কলকাতা যাবো। কিন্তু আসা যাওয়া চিকিৎসা ব্যয়বহুল হওয়ায় আমার পক্ষে বহন করা কঠিম্ন হয়ে পড়ছে।

কেননা সংসারের পুরো ভার আমার ওপর। ছোট ভাইকে সন্ত্রাসীরা গুলি করায় তার হাত কেটে ফেলতে হয়েছে, আরেক ভাই কিডনির সমস্যা মারা গেছে। ওদের চিকিৎসার সব খরচ আমি চালিয়েছি। এখন আর এই ভার টানতে পারছি না। তাছাড়া আমার মাও অসুস্থ। ওনার জন্য অনেক টাকা ব্যয় হচ্ছে। একজন লোক রাখা হয়েছে তাকে দেখভালের জন্য।

এই গুণী অভিনেত্রী বলেন, ‌‌আমার হাতে কাজ থাকলে হয়তো এসব সমস্যা হতো না। অসুস্থতার জন্য কোনো কাজই করতে পারি না। আমার আর্থিক অবস্থা এতো খারাপ ছিল না। আমি একটা চলচ্চিত্রও প্রযোজনা করেছিলাম। কিন্তু লগ্নিকৃত অর্থ ফেরত পাইনি। আর্থিক ক্ষতি হলেও সব সামলে নিয়েছিলাম। কিন্তু ক্রমাগত পুরো সংসারের চিকিৎসা চালাতে গিয়ে জমাকৃত অর্থও শেষের পথে।

আমি প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য প্রার্থনা করছি। তিনি শিল্পীর মর্যাদা বোঝেন। প্রধানমন্ত্রী শিল্পীবান্ধব মানুষ। সবসময় তিনি শিল্পীদের বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছেন । আর কোনো উপায় না থাকায় আমিও এখন তার সহায়তা কামনা করছি। তিনি সহায়তা করলে আমি হয়তো আবারও সুস্থ হয়ে কাজে ফিরতে পারব।’

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে