আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > ফিরিয়ে নেয়া হচ্ছে সু চির পদক

ফিরিয়ে নেয়া হচ্ছে সু চির পদক

sakharov__aung_san_suu_kyi_strasbourg

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

মানবাধিকার রক্ষা, আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধা, সংখ্যালঘুর অধিকার ও রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষা করতে না পারায় মিয়ানমারের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চিকে দেয়া এক পুরস্কার ফিরিয়ে নেয়ার কথা বলেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। কূটনৈতিক সূত্র এ কথা জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধা, মানবাধিকার ও সংখ্যালগু অধিকার রক্ষা করার স্বীকৃতি স্বরূপ ১৯৯০ সালে অং সান সু চিকে ‘শাখারভ’ পুরস্কার দিয়েছিল ইইউ। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর হাতে রোহিঙ্গা নির্যাতন অবিলম্বে বন্ধের আহ্বান জানানোর একদিন পরে বৃহস্পতিবার এই রেজ্যুলেশন গৃহীত হয়।

বৃহস্পতিবার(১৪ সেপ্টেম্বর) ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টর এক বৈঠকে এ সংক্রান্ত বিশটি প্রস্তাব পাশ হয়। বৈঠকে মিয়ানমার নিরাপত্তা বহিনীর সদস্যরা রোহিঙ্গাদের হত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন, দেশত্যাগে বাধ্য করা, সম্পদ লুটের বিষয়ে আলোচনা হয়।

এ বিষয়ে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের পক্ষ থেকে পরে এক বিবৃতি দেয়া হয়। সেখানে বলা হয়, রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন, হত্যা. ধর্ষণ, সম্পদ লুট ও দেশ থেকে তাড়িয়ে দিচ্ছে মিয়ানমার সরকার।

রোহিঙ্গা বিষয়ে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টে এক বিতর্কের পরে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও ইউরোপিয়ান কমিশনকে মিয়ানমার সরকারের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘন ঠেকানোর জন্য গৃহীত যৌথ রেজ্যুলেশনে চাপ বৃদ্ধির আহ্বান জানানো হয়। এসময়ে বলা হয়, ‘শাখারভ’ পুরস্কার তাকেই দেয়া হয় যে মানবাধিকার রক্ষা করবে, সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা দেবে এবং আন্তর্জাতিক আইনকে সম্মান জানাবে।

সু চির প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলা হয় যারা এগুলি পালন করবে না তাদের ‘শাখারভ’ পুরস্কার প্রত্যাহার করে নেয়া হলে অবাক হওয়ার মতো কিছুই হবে না।

বৈঠকে রাখাইনে হত্যা, সহিংস ঘটনা, বেসামরিক নাগরিকের সম্পদ ধ্বংস এবং বাস্তচ্যুত হবার ঘটনায় ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট চরম উদ্বেগ প্রকাশ করে। রোহিঙ্গাদের হত্যা, নির্যাতন ও ধর্ষণ বন্ধের জন্য মিয়ানমার সামরিক ও নিরাপত্তা বাহিনী এবং অং সান সু চির প্রতি জোরালো আহ্বান জানায়।

মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির প্রতি বিশেষ আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, সব ধরনের জাতিগত ও ধর্মীয় সহিংসতাকে নিন্দা জানানোর জন্য। বাংলাদেশ সীমান্তে ল্যান্ডমাইন সরিয়ে ফেলার জন্য তারা মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বান জানায় ইইউ।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে