আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রোহিঙ্গা সংকট > মিয়ানমারের ১৭৬ গ্রাম রোহিঙ্গাশুন্য

মিয়ানমারের ১৭৬ গ্রাম রোহিঙ্গাশুন্য

মিয়ানমারের ১৭৬ গ্রাম রোহিঙ্গাশুন্য

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

ঢলের মত সীমান্ত দিয়ে রোহিঙ্গারা প্রবেশ করছে জীবন বাঁচাতে। মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির জনস্রোত কমার কোনো লক্ষণ নেই। এরইমধ্যে সে দেশের মংডু, বুচিডং ও রাচিডং টাউনশিপ (জেলা) এলাকার অন্তত ১৭৬ গ্রাম রোহিঙ্গা শূন্য হয়েছে। মিয়ানমারের প্রেসিডেন্টের দপ্তরের মুখপাত্রের বরাত দিয়ে ভারতের সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানিয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে, এসব গ্রামের অন্তত পাঁচ লাখ মানুষ সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের বাড়ি-ঘর অগ্নি সংযোগের মাধ্যমে পুড়িয়ে ছাই করেছে সেদেশের সরকারি বাহিনীর সদস্য ও সংখ্যাগরিষ্ঠরা।

বৌদ্ধ অধ্যুষিত দেশটির প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র জ হাতয়ের বরাত দিয়ে ভারতের হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, রাখাইনের তিনটি শহরতলিতে মোট ৪৭১টি গ্রাম রয়েছে। এর মধ্যে ১৭৬টি গ্রামে কোনো মানুষ নেই। আশপাশের ৩৪টি গ্রাম থেকেও লোকজন পালিয়ে চলে যাচ্ছে। তারা প্রতিবেশী দেশগুলোতে গিয়ে আশ্রয় নিচ্ছে। তিনি আরও বলেন, পালিয়ে যাওয়া বাসিন্দারা মিয়ানমারে ফিরতে চাইলে অবশ্যই সবাইকে ফিরে আসার অনুমতি দেওয়া হবে না। এ ব্যাপারে যাচাইবাছাই করা হবে।

তবে মুসলিম রোহিঙ্গা বিদ্রোহীরাই বাড়িঘরে আগুন দিচ্ছে—মিয়ানমার সরকারের পক্ষ থেকে এমন দাবি করা হলেও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা জানিয়েছে, এরই মধ্যে এই সহিংসতার শিকার হয়ে প্রায় তিন হাজার রোহিঙ্গা প্রাণ হারিয়েছেন।

 

এন টি

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে