আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > উ. কোরিয়ার উপর আবারো জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা

উ. কোরিয়ার উপর আবারো জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা

উ. কোরিয়ার উপর আবারো জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

নিষেধাজ্ঞা সত্বেও বার বার পরমাণবিক পরীক্ষা চালিয়ে আবারো নতুন নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হল উত্তর কোরিয়া। নিজেদের ষষ্ঠ ও সবচেয়ে শক্তিশালী পারমাণবিক পরীক্ষা চালানোর ফলে ফের জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছে উত্তর কোরিয়া।

২০০৬-এর পর এ নিয়ে দেশটির ওপর অষ্টমবারের মতো অবরোধের প্রস্তাব আনা হলো। যদিও পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি থেকে পিয়ং ইয়ং-কে বিরত রাখা সম্ভব হয়নি। আবার নতুন করে নিষেধাজ্ঞার মুখে পরেছে উত্তর কোরিয়ার তেল আমদানি ও কাপড় রপ্তানির বিষয়টি। পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে নিরাপত্তা পরিষদের আলোচনার বিষয়ে জ্ঞাত এক মার্কিন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বার্ষিক প্রায় ৪৫ লাখ ব্যারেল পরিশোধিত পেট্রলিয়াম পণ্য ও ৪০ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমাদানি করে উত্তর কোরিয়া।

এই নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছে কয়লা, সিসাও। আছে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সম্পদ জব্দ করার বিষয়টিও। তেল আমদানিতে এর আগেও যুক্তরাষ্ট্র কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। জাতিসংঘে এই নিষেধাজ্ঞার পক্ষে ১৫টি ভোট পড়ে। বিপক্ষে একটিও ভোট পড়েনি।

দেশটির ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি করা প্রাথমিক খসড়া প্রস্তাবটি আরো অনেক কঠোর ছিল, কিন্তু উত্তর কোরিয়ার মিত্র ও নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী দুই সদস্য চীন ও রাশিয়ার সমর্থন আদায়ের জন্য প্রস্তাবটি অনেকটা নমনীয় করা হয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

গত ৩ সেপ্টেম্বর উত্তর কোরিয়ার কিজু এলাকায় ভূকম্পন অনুভূত হওয়ার পর পিয়ংইয়ংয়ের পক্ষ থেকে পারমাণবিক বোমা পরীক্ষা চালানোর ঘোষণা বাস্তবায়ন করা হয়। গত বছর সেপ্টেম্বরে চালানো পঞ্চম পারমাণবিক পরীক্ষা থেকে এবারেরটি ৯ দশমিক ৮ গুণ বেশি শক্তিশালী বলে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা। তারপর থেকেই তোড়জোড় শুরু হয় নতুন করে ব্যবস্থা নেবার। নিরাপত্তা পরিষদে সোমবারের বৈঠকে সবার সম্মতিক্রমে এই সিদ্বান্ত নেয়া হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এমনও বলেছিলেন যে, যেসব দেশ উত্তর কোরিয়ার সাথে বাণিজ্য করবে তাদের সাথেও সম্পর্ক ত্যাগ করা হবে।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে