আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > শিল্প-সাহিত্য > শিল্পী শাহাবুদ্দিনের ৬৭তম জন্মদিন আজ

শিল্পী শাহাবুদ্দিনের ৬৭তম জন্মদিন আজ

শাহাবুদ্দিন আহমেদ

প্রতিচ্ছবি ডেস্ক:

আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান সম্পন্ন চিত্রশিল্পী ও গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদের ৬৭তম জন্মদিন আজ। ১৯৫০ সালের ১১ সেপ্টেম্বর তিনি নরসিংদীর রায়পুরা থানার আলগী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা তায়েব উদ্দিন আহমেদ ও মা সাফিউন্নেছা আহমেদ। মুক্তিযুদ্ধে প্লাটুন কমান্ডার হিসেবে নেতৃত্ব দেন এ শিল্পী।

শাহাবুদ্দিন ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে মাত্র ২১ বছর বয়সে প্লাটুন কমান্ডার হিসেবে ঢাকা শহর এবং দেশের অন্যান্য স্থানে সম্মুখ ও গেরিলা যোদ্ধা হিসেবে মুক্তিযোদ্ধাদের নেতৃত্ব দেন। সহযোদ্ধা হিসেবে তাঁর সাথে ছিলেন – ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা এবং পপ সম্রাট ও গুরু আজম খান।

শিল্পী শাহাবুদ্দিন ১৯৬৮ সালে এস,এস,সি পাশ করেন ফরিদউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। তিনি ১৯৭৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন আর্টসে পড়াশোনা করে বিএফএ ডিগ্রী অর্জন করেন। ঐ বছরই ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। পরবর্তীতে ফ্রান্স সরকার হতে চারুকলায় বৃত্তিলাভ করে ১৯৭৪ সাল থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত ইকোল দে বোজার্ট চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে অদ্যাবধি প্যারিসে কর্মরত আছেন।

মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধা এই দুই অনুষঙ্গই তার চিত্রকার্যের প্রধান উপাদান। এর সঙ্গে ইউরোপীয় চিত্রকলার ঐতিহ্যের মিশ্রণ তার চিত্রকর্মকে করে তুলেছে ভিন্নধর্মী। শিল্পের মিথষ্ক্রিয়ার সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের গতিশীল-পেশীবহুল সাহস ও শক্তিমাত্রা মিলিয়ে অতিমানবীয় পুরুষের ছবির অনুরণন তার ক্যানভাসে।

দেশে বিদেশে বিভিন্ন চিত্র প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মহাত্মা গান্ধী, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম থেকে শুরু করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে দেশ-বিদেশে নিজের শিল্পকর্মের মাধ্যমে উপস্থাপন করেছেন তিনি।

তিনি দেশে বিদেশে অগণিত একক ও যৌথ চিত্র প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছেন। দেশে বিদেশে বিভিন্ন সম্মানজনক পুরস্কার অর্জন করেছেন শিল্পী শাহাবুদ্দিন। ১৯৬৮ সালে পাকিস্তানের শ্রেষ্ঠ শিশু চিত্রশিল্পী হিসেবে ‘প্রেসিডেন্ট স্বর্ণপদক’, ১৯৩০ সালে শ্রেষ্ঠ চিত্রশিল্পী হিসেবে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’, ১৯৭৫ সালে ফ্রান্সের ‘সেলোন দো প্রিন্টক্যাম্প স্বর্ণপদক’ এবং ১৯৮১ সালে শ্রেষ্ঠ চিত্রশিল্পী হিসেবে উপরোক্ত স্বর্ণপদক পুনরায় লাভ করেন তিনি।

১৯৯২ সালে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ ৫০ জন মাস্টার পেইন্টারদের একজন হয়ে বার্সেলোনা অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করেন শাহাবুদ্দিন। তার চিত্রকর্ম দেশের এবং বিদেশের বিভিন্ন যাদুঘর, গ্যালারি এবং চিত্রপ্রেমী বিভিন্ন মানুষের ব্যক্তিগত সংগ্রহে রক্ষিত রয়েছে।

সদ্য ফ্রান্স সরকার কতৃক চিত্রকলায় অসামান্য অবদানের জন্য সে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান ‘নাইট ইন দি অর্ডার অব দ্যা আটর্স অ্যান্ড লিটারেচার’-এ ভূষিত হয়েছেন গুণী এই শিল্পী।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে