আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > রাম রহিমের ডেরার গোপন সুরঙ্গ পৌঁছেছে মেয়েদের হোস্টেলে

রাম রহিমের ডেরার গোপন সুরঙ্গ পৌঁছেছে মেয়েদের হোস্টেলে

রাম রহিমের ডেরার গোপন সুরঙ্গ পৌঁছেছে মেয়েদের হোস্টেলে

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

ভারতের কথিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিমের ব্যক্তিগত আবাস থেকে একটি সুড়ঙ্গের সন্ধান পাওয়া গেছে। ডেরা থেকে সুড়ঙ্গটি চলে গেছে সোজা সাধ্বী নিবাসের দিকে। বাইরে থেকে বোঝার কোনো উপায় নেই। এই গোপন পথের সন্ধান মিলল সিরসার ডেরায়। এটা ছাড়াও আরো একটা সুড়ঙ্গের হদিশ পেয়েছে গতকাল থেকে তল্লশি চালানো টিম।

হরিয়ানা সরকারের মুখপাত্র সতীশ মিশ্র জানিয়েছেন, “আমরা জানলার মতো চৌকোনা একটা সুরঙ্গপথ পেয়েছি যেটা ডেরা আবাস থেকে সাধ্বী নিবাস পর্যন্ত গিয়েছে।” দ্বিতীয় সুড়ঙ্গটা ডেরার ভিতর থেকে শুরু হয়ে পাঁচ কিলোমিটার বাইরে গিয়ে শেষ হয়েছে। এটা পুরোটাই মাটির। সম্ভবত দরকারে পালানোর পথ হিসেবেই এটা তৈরি রাখা হয়েছিল, মনে করছে পুলিশ।

কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক এখন দিনমজুরি পাবেন চল্লিশ টাকা। বাবার সাজা ঘোষণার পর থেকেই তার বিরুদ্ধে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে । ডেরায় তল্লাশিতে প্রতিদিন যে তথ্য সামনে আসছে তাতে নতুন করে চমকে উঠছেন সকলে। সিরসায় রাম-রহিমের ডেরায় শনিবারও তল্লাশি। প্লাস্টিকের নিজস্ব মুদ্রা-র পর এবার বিস্ফোরক কারখানার হদিশ। পাওয়া গেল নম্বর প্লেট হীন গাড়ি। খোঁজ মিলল সাধ্বীদের ঘরে যাওয়ার সুড়ঙ্গের। বাবার নানা কীর্তি খতিয়ে দেখতে ৮০ সদস্যের বিশেষজ্ঞ দল গড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত দু’দিন ধরে ডেরায় তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে নিরাপত্তবাহিনী। এবার সামনে এল সাধ্বীদের হোস্টেলে অভিসারে যাওয়ার গোপন রাস্তা।  ইচ্ছে হলেই যখন তখন সাধ্বীদের আবাসে চলে যেতে পারতেন বাবা রাম রহিম, তাও লোকচক্ষুর আড়ালে। কয়েকদিন আগে নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে গত ২৫ আগস্ট দোষী সাব্যস্ত হন রাম রহিম। এরপর তাঁকে দুটি মামলায় ১০ বছর করে মোট ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত। তিনি এখন কারাগারে আছেন।

এন টি

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে