আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > চাঁদপুরে দেবরের ছুরিকাঘাতে অন্তঃসত্ত্বা ভাবি খুন

চাঁদপুরে দেবরের ছুরিকাঘাতে অন্তঃসত্ত্বা ভাবি খুন

চাঁদপুরে দেবরের ছুরিকাঘাতে ভাবি খুন

প্রতিচ্ছবি চাঁদপুর প্রতিনিধি :

চাঁদপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে দেবর ইয়াছিনের (২৮) ছুরিকাঘাতে ভাবি শারমীন বেগম (২০) খুন হয়েছে। নিহত শারমীন ঘাতক ইয়াছিনের বড় ভাই প্রবাসী ইউসুফ মিজির স্ত্রী এবং পাশ্ববর্তী ফরিদগঞ্জ উপজেলার কেওরা গ্রামের তাজুল ইসলামের মেয়ে।

মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নের মমিনপুর গ্রামের মিজি বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর স্থানীয়রা অভিযুক্ত ইয়াছিন মিজিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

নিহতের স্বামী ইউসুফ মিজি জানান, রমজানের এক মাস আগে তিনি সৌদি আরব থেকে ছুটিতে বাড়িতে আসেন। অভিযুক্ত ইয়াছিন বাহরাইন থেকে গত রমজানের পর দেশে ফিরে এসেই পারিবারিক কলহে জড়িয়ে পড়ে।

এর আগে তাকে সৌদি আরবে নেয়ার কথা ছিলো, কিন্তু ভিসা দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার কারণে তিনি ইয়াছিনকে নিতে পারেননি। এ নিয়ে ইয়াসিন প্রায়ই তার ভাবী শারমিনকে সন্দেহ করতো। যে স্বামী ইউসুফকে প্ররোচনা দেয়ায় ইয়াসিন সৌদি যেতে পারছেন না।

শারমিনের শ্বাশুড়ী নুরজাহান বেগম জানায়, তারা যৌথ পরিবারে বাস করেন, ঘটনার পূর্বে তারা সবাই একসাথে রাতের খাবার গ্রহণ করেন। খাওয়া শেষে স্ত্রী শারমিনের অনুরোধে স্বামী ইউসুফ বাড়ির পাশের দোকান থেকে হাত ধোয়ার সাবান আনতে যান।

এর ফাঁকে ইয়াসিন ঘরে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে তার অন্তঃসত্তা ভাবির পেটে আঘাত করলে নাড়িভুড়ি বের হয়ে যায়। শারমিনের আত্মচিৎকারে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্যে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক ডা. রায়হান মো. ওমর ফারুক বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের পেটে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। ধারণা করা যাচ্ছে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।

চাঁদপুর মডেল ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ওয়ালী উল্লাহ অলি জানান, ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা অভিযুক্তকে আটক করেছে। পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

রিয়াদ ফেরদৌস/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে