আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > রাখাইনে জাতিসংঘের ত্রাণ পৌঁছুতে দিচ্ছেনা মায়ানমার

রাখাইনে জাতিসংঘের ত্রাণ পৌঁছুতে দিচ্ছেনা মায়ানমার

রাখাইনে জাতিসংঘের ত্রাণ পৌঁছুতে দিচ্ছেনা মায়ানমার

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

মায়ানমার সরকারের বাধার মুখে নিপীড়িত হাজার হাজার বেসামরিক মানুষকে খাবার, পানি ও ওষুধের প্রয়োজনীয় সরবরাহ করতে পারছে না জাতিসংঘের বেশ কয়েকটি সহযোগী সংস্থা। ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ানের অনুসন্ধানী এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

জাতিসংঘের সব সহযোগী দাতা সংস্থার ওপর অবরোধ আরোপ করেছে মায়ানমার। জাতিসংঘের অভিযোগ মায়ানমার সরকারের কারণেই ত্রাণ কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কখনও ভিসা বন্ধ করে, কখনও সহায়তাকর্মীদের ফেরত পাঠিয়ে, কখনওবা আবার স্থানীয় প্রশাসনের রক্তচক্ষুর মাধ্যমে ত্রাণ সরবরাহে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এতা জীবন নিয়ে শঙ্কায় আছেন লাখ লাখ রোহিঙ্গা।

গত ২৫ আগস্ট সেনা অভিযান শুরুর পর রাখাইনে এ পর্যন্ত ৪০০ রোহিঙ্গার মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।  রোহিঙ্গাদের ঘর-বাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় জিরো পয়েন্টে অবস্থানকারী রোহিঙ্গাদের ওপরও গুলি ছুড়ছে মায়ানমারের সেনাবাহিনী। অভিযান শুরুর পর বেসামরিকদের বিপন্নতার মধ্যেই ২ সেপ্টেম্বর রাজ্যের উত্তরাঞ্চলে ত্রাণ সরবরাহ স্থগিত করার ঘোষণা দেয় জাতিসংঘ। নিরাপত্তাজনিত সংকটকে কারণ দেখিয়ে ত্রাণ সরবরাহ বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়।

জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কের অফিস বলছে, যত দ্রুত সম্ভব মানবিক ত্রাণসহায়তা কার্যক্রম শুরু করার লক্ষ্যে মায়ানমার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে নিবিড় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে জাতিসংঘ। তবে রাখাইন রাজ্যের অন্যান্য অংশে সহায়তা অব্যাহত রয়েছে।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর, জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিল (ইউএনএফপিএ), জাতিসংঘ শিশু তহবিলের (ইউনিসেফ) কর্মীরা গত এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে কোনো ধরনের কাজ করতে পারছে না। জীবন রক্ষাকারী এই ত্রাণসহায়তা সেখানে স্থগিত রাখায় রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি দরিদ্র বৌদ্ধদের ওপরও প্রভাব পড়ছে।

আবাস হারানো মানুষগুলো সহ অন্যান্য বেসামরিক মানুষের জন্য নিরাপত্তা ও সুরক্ষা দরকার। তাদের অবিলম্বে খাবার, পানি, আবাস, স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন ধরনের মানবিক সহায়তা পৌঁছে দেওয়া অপরিহার্য। জাতিসংঘের অফিস ফর দ্য কো-অর্ডিনেশন হিউম্যানটারিয়ান অ্যাফেয়ার্স এর একজন মুখপাত্র গার্ডিয়ানকে বলেন, ‘মানবিক সহায়তা তাদেরকেই দেওয়া হয়, বিপন্ন অবস্থায় থাকা যে মানুষরা এর ওপর নির্ভরশীল।’

এন টি

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে