আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > ভারতে ৩ বছর জেল খেটে দেশে ফিরল ১০ নারী

ভারতে ৩ বছর জেল খেটে দেশে ফিরল ১০ নারী

ভারতে ৩ বছর জেল খেটে দেশে ফিরল ১০ নারীপ্রতিচ্ছবি বেনাপোল প্রতিনিধিঃ

ভালো কাজের প্রলোভনে ভারতে পাচার হওয়া ১০ বাংলাদেশি নারীকে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগের আটকের ৩ বছর পর বেনাপোল দিয়ে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ।

রোববার বিকালে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদেরকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের এসআই ফজলুর রহমান জানান, ‘ভালো কাজের কথা বলে দালালরা তাদের সীমান্ত পথে ভারতে নিয়ে যায়। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতের মুম্বাই শহর থেকে পুলিশ তাদের আটক করে জেল হাজতে পাঠায়। সেখান থেকে একটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটে তারা দেশে ফেরত আসে।

ফেরত আসা নারীরা হলেন, মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার সোহাগী (২১), রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার পারুল আক্তার (১৭), শার্শা উপজেলার র্ঝনা খাতুন (২২) ও সহিরন খাতুন (২১), ঝিকোরগাছা উপজেলার রাশেদা বেগম (২৪), যশোর সদোর এলাকার আলেয়া বেগম (২২), ঝিনেদাহের মহেশপুর উপজেলার নারগিস (১৯), বাগেরহাটের মোল্লারহাট উপজেলার শ্যামলী (২০), সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার মায়া দেবী মন্ডোল (২২) ও শ্যামনগর উপজেলার নবিতা নারী সরদার (২০)।

পুলিশের কাছ থেকে জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থ্যা তাদেরকে গ্রহন করেছে পরিবারের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্য।

ঢাকা আহসনিয়া মিশনের স্থানীয় র্কমর্কতা ফাতেমা খাতুন জানান, এরা তাদের শেল্টার হোমে থাকবে। কয়েক দিনের মধ্যে এদেরকে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে। এসময় কেউ যদি পাচারকারীদের সনাক্ত করে মামলা করতে চায় আইনি সহয়তা করা হবে।

সাজেদুর রহমান / আর এইচ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে