আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রোহিঙ্গা সংকট > সুচিকে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়ার আহ্বান মালালার

সুচিকে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়ার আহ্বান মালালার

সুচিকে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়ার আহ্বান মালালার

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

রোহিঙ্গা নির্যাতন নিয়ে রাখাইনের বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রতিবাদ জানালেন শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা। নির্বিচারে মানুষহত্যা, ঘরবাড়ি জালিয়ে দেয়া, দেশ থেকে বিতাড়িত করার নিন্দা জ্ঞাপন করেছেন তিনি। মায়ানমারের নেত্রী অং সান সুচিকে উধাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন কার্যকরী একটি ব্যবস্থা নেয়ার জন্য।

সম্প্রতি আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি নামে একটি জঙ্গী গ্রুপ কমপক্ষে ২৫টি পুলিশ ফাঁড়ি আক্রমণ করে। এর জের ধরে শুরু হয়েছে রোহিঙ্গা নির্যাতন। বাড়িঘর জালিয়ে পুড়িয়ে, গুলি করে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করা তাড়িয়ে দেয়া হচ্ছে মায়ানমার থেকে। পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের থেকে শোনা গেছে মর্মান্তিক নির্যাতনের গল্প। সাম্প্রতিক সহিংস পরিস্থিতিতে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে রোহিঙ্গা শিশুদের হত্যাকাণ্ডকে হৃদয় বিদারক আখ্যা দেন মালালা। বলেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে আমি বারবার তাদের [রোহিঙ্গাদের] বিরুদ্ধে অমানবিক ও নিন্দনীয় ভূমিকার নিন্দা জানিয়ে আসছি।’

এদিকে ত্রাণ সরবরাহে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে জাতিসংঘ। সীমান্তে প্রবেশের মুখে বাধা দেয়া হচ্ছে। হাজার হাজার রোহিঙ্গা সীমান্ত এলাকায় খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন। নাফ নদীতে ভেসে উঠছে লাশের পর লাশ। এরকম ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ে মানবতাবিরোধী অপরাধের  অভিযোগ তুলেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকদের অভিমত, মিয়ানমার আদতে রোহিঙ্গাদের পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন করতে চায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের পৃথক পৃথক প্রতিবেদনে উঠে আসছে ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞ’র করুণ আখ্যান।

মালালা বিবৃতিতে বলেছেন, ছোট ছোট নিষ্পাপ শিশুদের হত্যা বন্ধ কর। অনেক বছর ধরে রোহিঙ্গারা মায়ানমারের বাসিন্দা। এদের তাড়িয়ে দিলে তারা কোথায় যাবে? মিয়ানমার সরকারকে মালালা রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিতের তাগিদ দেন।

এরআগেও অনেকবার রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন মালালা। ২০১৫ সালেও মালালা এক বিবৃতিতে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধ করে নাগরিকতা নিশ্চিত করতে আহ্বান জানান।

এন টি

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে