আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > কোরবানির ঈদকে ঘিরে বেড়েছে ফ্রিজের বিক্রি

কোরবানির ঈদকে ঘিরে বেড়েছে ফ্রিজের বিক্রি

কোরবানির ঈদকে ঘিরে বেড়েছে ফ্রিজের বিক্রি

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক :

রাত পোহালেই ঈদুল আজহা। ঈদুল আজহায় পশু কোরবানির বিষয়টি মুখ্য থাকায় এ ঈদ ঘিরে ফ্রিজ কেনাটাই প্রাধান্য পায়। এ বছরও এর ব্যতিক্রম হয়নি। রাজধানীর বেশকিছু ইলেকট্রনিক্স পণ্যের শো-রুম ঘুরে এমন তথ্যই পাওয়া গেল।

কেউ কোরবানির মাংস রাখার জন্য ফ্রিজার বা ডিপ ফ্রিজ কিনছেন, কেউ ফ্রিজের ব্র্যান্ড পাল্টাতে নতুন ফ্রিজ কিনছেন। সচেতন ক্রেতারা ফ্রিজের দাম যাচাইবাছাই করার পাশাপাশি কোন ব্র্যান্ড কী ধরনের ছাড় দিচ্ছে, কী ধরনের উপহার ও সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে, সেটাও বিবেচনায় নিচ্ছেন।

কোরবানির ঈদকে ঘিরে বেড়েছে ফ্রিজের বিক্রিশুক্রবার ভিশন, ট্রান্সকম, ওয়ালটন, সিঙ্গার, র‍্যাংগস, সামস্যাং, হিটাচি, হায়েস অ্যান্ড হায়ার,  এলজিসহ রাজধানীর বেশকিছু ইলেকট্রনিক্স পণ্যের শো-রুম ও সেলস সেন্টার ঘুরে দেখা গেছে, অন্য সময়ের তুলনায় রেফ্রিজারেটরের চেয়ে ফ্রিজারের বিক্রি বেড়েছে দ্বিগুণের বেশি।

এছাড়া, নতুন ইলেকট্রনিক্স পণ্য হিসেবে সিম্ফনি ব্র্যান্ডের রেফিজারেটর ও ফ্রিজার অল্প সময়ে বেশ ভালোই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। চাহিদার পাশাপাশি প্রযুক্তিগত সুবিধা, আকর্ষণীয় আকার ও নকশায় নতুনত্বের পাশাপাশি বিদ্যুৎসাশ্রয়ী ফ্রিজ তৈরিতেও জোর দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

সিম্ফনি রেফ্রিজারেটরের গুলশান শো-রুমে আসা এক ক্রেতা বলেন, সিম্ফনির স্মার্টফোন ব্যবহার করে সন্তুষ্ট হয়েছি। তাই, এবার বাজারে এদের রেফ্রিজারেটর এসেছে শুনে দেখতে এসেছি। পছন্দ হলে ও দাম সাধ্যের মধ্যে থাকলে কিনে ফেলতেও পারি।

কোরবানির ঈদকে ঘিরে বেড়েছে ফ্রিজের বিক্রিবিক্রেতারা জানান, সারা বছরে যত ফ্রিজ বিক্রি হয় তার ৩০ থেকে ৪০ শতাংশই বিক্রি হয় কোরবানির ঈদের আগে। বাজারে ১০০ থেকে ৪০০ লিটার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ফ্রিজ পাওয়া গেলেও ঈদের আগে বেশি বিক্রি হয় ১৫০ থেকে ২০০ লিটার ধারণ ক্ষমতার ফ্রিজ। এই ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ফ্রিজগুলোই মধ্যম আয়ের মানুষের বেশি পছন্দ।

ক্রেতা আকর্ষণে নগদ অর্থ ছাড়, বিভিন্ন উপহারসামগ্রী, স্ক্র্যাচ কার্ড ঘষে বিদেশে বেড়ানোর সুযোগ, এমনকি তারকাদের সঙ্গে বিদেশ ভ্রমণের সুযোগ দিচ্ছে অনেক প্রতিষ্ঠান।

২২ হাজার থেকে ৪৪ হাজার টাকা দামের ফ্রিজ বেশি বিক্রি হয় জানিয়ে ট্রান্সকম ডিজিটালের কারওয়ান বাজারের শো-রুম ও সেলস সেন্টারের এক্সিকিউটিভ আবুল বাশার বলেন, ঈদ উপলক্ষ্যে ট্রান্সকমের নতুন সংযোজন সেমি ফ্রস্ট ফ্রিজ। এই ফ্রিজে হালকা বরফ জমে। খাবারও ভালো থাকে। পাশাপাশি ইনভার্টার যুক্ত কম্প্রেসর ফ্রিজে ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয়।

কোরবানির ঈদকে ঘিরে বেড়েছে ফ্রিজের বিক্রিএদিকে, ক্রেতাদের বাড়তি চাহিদার সুযোগে অতিরিক্ত দাম নেয়া হচ্ছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে সিঙ্গার ইলেকট্রনিক্সের ঢাকা সেনানিবাস শো-রুমের ব্যবস্থাপক শাহাদাত হোসেন সৌরভ বলেন, কোম্পানি নির্ধারিত দামের অতিরিক্ত কোনো টাকা নেয়া হচ্ছে না। তাছাড়া, বেশি দামের চেয়ে কম দামের ফ্রিজই ক্রেতাদের বেশি পছন্দ।

এলজি-বাটারফ্লাই ইলেকট্রনিকসের মগবাজার শো-রুমের ব্যবস্থাপক খলিফা মেহেদি হাসান বলেন, ক্রেতাদের ফ্রিজ কেনার আগে কয়েকটি পরামর্শ দেওয়া হয়। পরামর্শগুলো হলো- বাসায় নেওয়ার কমপক্ষে তিন ঘণ্টা পরে ফ্রিজ চালু করতে হবে। তার আরও তিন ঘণ্টা চলার পর ফ্রিজে খাবার বা পণ্য রাখতে হবে। আর বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে গ্রামে ফ্রস্ট ফ্রিজ ব্যবহারে সুবিধা পাওয়া যাবে।

এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে