আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খুলনা > স্বর্ণ পাচারে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

স্বর্ণ পাচারে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

স্বর্ণের বার
বেনাপোল প্রতিনিধি:

স্বর্ণের চালান ভারতে নিয়ে যেতে তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় নিজ গ্রামের গ্রামের মান্নান ও ভূটা। এরপর শরীফের লাশ মেলে বেনাপোলের পুটখালী ইছামতি নদীতে।

শরীফ পুটখালি গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে। স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, শরীফ (২৬) বেশ কিছু দিন স্বর্ণের চালান ভারতে পাচার করে আসছিল। পুটখালী গ্রাম থেকে ভারতে পাচার করলে ৫‘শ টাকা করে স্বর্ণের বার প্রতি পায়।

রোববার পুটখালী গ্রামের মান্নান ও ভূটা স্বর্ণের চালান ভারতে নিয়ে যেতে তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আসে। সে বাড়ি ফিরে না আসলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা করতে চাইলে মান্নান গংরা মামলা না করার জন্য হুমকি দেয়।

পরিবারের লোকজন চারিদিকে তাকে খুঁজতে থাকে। মঙ্গলবার সকালে ইছামতি নদীতে লাশ ভাসতে দেখে প্রশাসনকে খবর দেয়। লাশ উদ্ধারের পর তার পরিবারের সদস্যরা শরীফের লাশ সনাক্ত করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুটখালী গ্রামের এক ব্যক্তি জানান, ৪ কেজি স্বর্ণের বার নিয়ে শরীফ ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে বলে শুনেছি। ধারনা করা হচ্ছে স্বর্ণের বার গুলি তার কাছ থেকে কেড়ে নিয়ে তাকে হত্যা করে পানিতে ফেলে দেয়া হয়েছে।

পুটখালি বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার আবুল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘গত দুইদিন আগে শরীফ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। মঙ্গলবার সকালে তার লাশ বাংলাদেশ সীমান্তের ১৫০ নং পিলারের নিকট ইছামতি নদীতে ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন খবর দেয়।’

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই শরীফ হাবিবুর রহমান বলেন, ‘নদী থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।’

মোঃ সাজেদুর রহমান / এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে