আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > রাজ্জাক থেকে ‘নায়করাজ’ উপাধি

রাজ্জাক থেকে ‘নায়করাজ’ উপাধি

razzak-youth4-wb

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

রাজ্জাক থেকে বাংলাসিনেমার নায়করাজ। অনেকেই হয়তো জানেন না নায়ক রাজ্জাকের ‘নায়করাজ’ হয়ে ওঠার গল্পটা। কেমন করে তিনি হলেন নায়করাজ?

খুব বেশিদিন আগের কথা কিন্তু নয়। চলতি বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি তার ৭৬তম জন্মদিনে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন সে গল্পটা ও এ উপাধি দেয়া নেপথ্য মানুষটার নামও।

প্রখ্যাত চলচ্চিত্র সাংবাদিক আহমদ জামান চৌধুরী। যাকে সবাই খোকাভাই নামেই চেনেন। খোকাভাইয়ের সঙ্গে দারুণ সম্পর্ক ছিল রাজ্জাকের। তার নায়করাজ উপাধিটিও খোকাভাইয়ের দেয়া।

রাজ্জাক বলেছিলেন, ‘আমার জীবনের সবচেয়ে বড় বন্ধু, সবচেয়ে বড় শত্রু খোকাভাই। ওর সঙ্গে কথাকাটাকাটিই নয়, মারামারি পর্যন্ত হয়েছে আমার। তবুও আমার প্রাণের বন্ধু সেই। যখনই মন খারাপ হয়েছে তাকে ডেকেছি। সেও আসত। দুজনে অনেক সময় কাটিয়েছি।

আমার যে নায়করাজ উপাধি সেটিও ও দিয়েছিল। জিজ্ঞেস করলাম এই উপাধি কেন? উত্তর দিল- উত্তমকুমার যদি ওপার বাংলার মহানায়ক হতে পারে তুমিও আমাদের নায়করাজ। আমার বন্ধু আজ আর নেই। আল্লাহ তাকে বেহেশত দান করুক।’

প্রসঙ্গত, চলচ্চিত্র সাংবাদিকতার কিংবদন্তি প্রখ্যাত চলচ্চিত্র সাংবাদিক আহমদ জামান চৌধুরী। চলচ্চিত্রকে তিনি ভালোবেসেছিলেন হৃদয় থেকে। ভাবতেন, বলতেন, লিখতেন- চলচ্চিত্র নিয়েই। শুধু তাই নয়, চলচ্চিত্রের প্রতি অগাধ ভালোবাসার কারণেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতাকে ছেড়ে চলচ্চিত্র সাংবাদিকতায় যোগ দেন।

তাই তিনি রুপালি পর্দার বাইরে এই অঙ্গনের সবচেয়ে প্রিয় মুখ হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। সাংবাদিকরাও যে চলচ্চিত্রের প্রাণপুরুষ হতে পারেন তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত তিনিই রেখে গেছেন। কারও কাছে খোকা জামান, কারও কাছে খোকাভাই আবার কারও কারও কাছে আজাচৌ নামে পরিচিত।

এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে