আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > জব্দ করা মার্সিডিজেই সিলেট এসেছিলেন সাফাত !

জব্দ করা মার্সিডিজেই সিলেট এসেছিলেন সাফাত !

২৪মে ২০১৭

sylhet-photo-aovi1

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদকঃ

মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে সিলেট থেকে বিলাসবহুল একটি মার্সিডিজ ব্র্যান্ডের ২ কোটি টাকা মূল্যের গাড়ি জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। জব্দ করা গাড়িটি আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের।

তিনি রাজধানী বনানীতে ২ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদের বাবা।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সিলেটের জিন্দাবাজার এলাকার একটি ভবনের নিচ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গাড়িটি জব্দ  করা হয়।

অপরদিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্য মতে, জব্দ করা ওই গাড়িতেই গত ৮ মে সিলেটে পালিয়ে এসেছিল বনানী ধর্ষণ মামলার আসামি সাফাত ও তার বন্ধুরা।

সাফাতের বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জের দক্ষিণ সুরমায় এবং মামা বাড়ি সিলেট নগরীর শেখঘাট এলাকায়। এ সূত্র ধরেই গাড়ি নিয়ে সিলেটে এসে দক্ষিণ সুরমার একটি রিসোর্ট ভাড়া করতে গিয়েছিল সাফাত।

a9efea70d7d8964d3ed230ae97732a03-591560b689b78

তবে সেখানে পরিচয়পত্র চাওয়ায় ভাড়া না করেই চলে আসে তারা। পরে সাফাতের মামা শেখঘাটের মাসুমের সহযোগিতায় নগরীর মদিনা মার্কেট পাঠানটুলার প্রবাসী মামুনুর রশীদের বাসারশীদ ভিলায় অবস্থান নেন সাফাত ও তার বন্ধু সদমান সাকিফ। এর আগেই আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর চোখে ধুলো দিতেই গাড়িটি অন্য একটি বাসায় রাখে থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন শুল্ক গোয়েন্দার সদস্যরা।

এদিকে ১১মে ঢাকার পুলিশের একটি টিম সিলেটে এসে প্রযুক্তির সহযোগিতায় সাফাত ও সাদমানকে পাঠানটুলার রশীদ ভিলা থেকে গ্রেপ্তার করে ঢাকায় নিয়ে যায়। এরপর থেকেই গোয়েন্দারা তাদের ব্যবহৃত গাড়ির খোঁজে নামেন। পরে ট্রেকিংয়ের মাধ্যমে সিলেটের শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর গাড়িটির সন্ধান পান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে