আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খুলনা > যশোরে চারতলার  ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

যশোরে চারতলার  ছাদ থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

178757_127

প্রতিচ্ছবি যশোর প্রতিনিধি :

যশোরের মণিরামপুর উপজেলার দুর্গাপুর মাস্টারপাড়ায় চারতলা একটি ভবনের ছাদ থেকে পড়ে মুসফিকুর রহমান সা’দ (৫) নামে এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার বেলা সাড়ে ১০ টার দিকে শহরের প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের পেছনে গাজী করাতকলের সামনের শহিদুল ইসলামের চারতলা ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সা’দের বাবা আনোয়ার হোসেন একজন হোমিও চিকিৎসক। আর মা সাজেদা বেগম উপজেলার লাউড়ি হাইস্কুলের শিক্ষক। চারতলা ভবনটির পেছনের একটি দোতলা বাসায়  উনারা ভাড়া থাকতেন।

স্থানীয়রা জানায়, সাজেদা বেগম সকালে এক আত্মীয়কে বাসায় রেখে তার কাছে সা’দকে দিয়ে কর্মস্থলে যান। সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সা’দ সামনের চারতলা ভবনের চারতলা ফ্লাটের আরাফ নামের অপর একটি শিশুর সঙ্গে খেলতে যায়। আরাফ ওই সময় বাসায় ছিল না। ওই ভবনের সবাই চাকরিজীবী। শিশুটি যে ওই ভবনে এসেছে তা কেউ লক্ষ্য করেনি। ফলে তারা বাইরে থেকে নিচের গেট তালাবদ্ধ করে চলে যায়। এদিকে আরাফকে বাসায় না পেয়ে ছাদে ওঠে সা’দ। পরে সেখান থেকে পড়ে গিয়ে শিশুটির মৃত্যু হয়।

ওই ভবনের পাশের বাসার লাকি খন্দকার নামে এক গৃহবধূ জানান, বেলা ১২টার দিকে তিনি নিজ বাসার ছাদে কাজ করছিলেন। সেখান থেকেই তিনি দেখতে পান ভবনের পেছনে একটি শিশু পড়ে আছে। এরপর তিনি নেমে এসে দেখেন ছেলেটির মুখ ও কানে রক্ত এবং সে নিথর হয়ে গেছে।

পিয়াল নামে এক যুবক জানান, তারা সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শিশুটির কান্না ও ওপর থেকে ভারি কিছু পড়ার শব্দ শুনেছেন। কিন্তু বিষয়টি তারা খেয়াল করেননি। তারা জানান, শনিবার সকালে সা’দের বাবা আনোয়ার হোসেন ভারত থেকে ফেরেন। তিনি ভারতে চিকিৎসা নিতে গিয়েছিলেন। বাসায় ফেরার সময় তিনি ছেলের জন্য নতুন পোশাক ও খাবার নিয়ে আসেন। বাসায় এসে ছেলের খোঁজ করেন তিনি। ছেলে সামনের বাসায় খেলছে ভেবে তিনি বাজারে তার চিকিৎসাকেন্দ্রে যান। অন্যান্য দিন সা’দ তার মায়ের সঙ্গে স্কুলে অথবা বাবার সঙ্গে দোকানে থাকতো। এই ঘটনায় পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

সাজেদ রহমান / এ এস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে