আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > ইয়াবাসহ স্কুলছাত্র আটকের পর টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিল পুলিশ

ইয়াবাসহ স্কুলছাত্র আটকের পর টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিল পুলিশ

ইয়াবাসহ স্কুলছাত্র আটকের পর টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিল পুলিশ

প্রতিচ্ছবি বেনাপোল প্রতিনিধি :

শার্শার গোড়পাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবু জাফরের বিরুদ্ধে ইয়াবাসহ ইমন নামের এক স্কুলছাত্রকে আটকের পর ৩৫ হাজার টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ইমন শাড়াতলা বাজারের ইমন ট্রেডার্সের মালিক পাইপ ইদ্রিস আলীর ছেলে ও সাড়াতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র।

এলাকাবাসী জানান, এলাকার কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আলমগীর ওরফে বোম্বে আলমগীরের কাছ থেকে ইয়াবা কিনে ডিহি ইউনিয়নের নৈহাটী গ্রামের ইটের সলিং রাস্তার উপর আসতেই ৫ পিস ইয়াবাসহ ইমন আলীকে এসআই আবু জাফর আটক করেন।

ইমনকে আটকের পর ক্ষমতাশীন দলের বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা তাকে ফাঁড়ি থেকে মুক্ত করতে দেন দরবার শুরু করে দেন। মাদকদ্রব্যসহ আটক কোন আসামিকে এভাবে ছাড়া যাবে না নাটকের পর ৩৫ হাজার টাকায় রফা-দফা হয় রাতে।

এলাকাবাসীর দাবি, গোড়পাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইউচার্জ এসআই আবু জাফরের সাথে সাপ্তাহিক চুক্তিতে বোম্বে আলমগীর দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় মাদক দ্রব্য বিক্রি করে আসছেন। পুলিশ টাকার বিনিময়ে এসব মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয় না।

স্কুল-কলেজগামী ছাত্রছাত্রীরা হাতের কাছে মাদক দ্রব্য পাওয়ায় তারা অল্প সময়ে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে গোড়পাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবু জাফর বলেন, এরকম কোন ঘটনা নাই।

জানতে চাইলে শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম মসিউর রহমান প্রথমে বলেন, এ ঘটনায় তো একটা মামলা দিয়েছে ও। আসামি বাড়িতে তাহলে মামলা হলো কিভাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,আমি জাফরের কাছে ঘটনাটি শুনে দেখি।

এরপর আবারও যোগাযোগ করলে ওসি মসিউর ‘আমি বাহিরে আছি থানায় ফিরে দেখব’ বলে এড়িয়ে যান।

সাজেদুর রহমান/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে