আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > প্রস্তুতিতে প্রস্তুত অস্ট্রেলিয়া

প্রস্তুতিতে প্রস্তুত অস্ট্রেলিয়া

প্রস্তুতিতে প্রস্তুত অস্ট্রেলিয়া ১

প্রতিচ্ছবি স্পোর্টস ডেস্ক:

সাদা জার্সি আর লাল বলে বাংলাদেশের ২২ গজে তাদের অভিজ্ঞতার ঝুঁলিটা শূণ্য। এদিকে হাতে সময় নেই বললেই চলে। বোর্ডের সঙ্গে ঝাঁমেলা মিটিয়ে নেবার পর হাতে ছিল মাত্র সপ্তাহ খানেক। তাই নিজেদের ঝাঁলিয়ে নিতে ঘরের মাঠে শেষ সময়ের প্রস্তুতিতে প্রস্তুত হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।

১৮ আগস্ট ঢাকায় পা রাখার আগে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে বুঝে নিয়েছে নিজেদের অবস্থা।

প্রথমেই দেখে নেয়া যাক টাইগারদের দৃষ্টিতে। সেখানে রয়েছে আশার বার্তা। যেমন ভালো ফর্মে নেই অজিদের টপ অর্ডার। বল হাতে পেসারদের অর্জনটা নেহাত নগন্য। তবে গতির সঙ্গে বাউন্স জুড়ে দিলে কতটা ভীতি ছড়ায় তা প্রমান ডেভিড ওয়ার্নারের লুটিয়ে পড়াতে। প্রস্তুতি ম্যাচে জস হ্যাজেল উডের বাউন্সার সরাসরি আঘাত হানলে উইকেটে লুটিয়ে পরেন তিনি। যদিও আঘাত গুরুতর নয় বলেই জানিয়েছেন।

প্রস্তুতিতে প্রস্তুত অস্ট্রেলিয়া ২

আহত হয়ে খুব বেশিক্ষণ ব্যাট করতে পারেননি অজি সহ অধিনায়ক। এদিকে ম্যাথু রেনশ কিংবা উসমান খাজাও উইকেটে কাটাতে পারেননি খুব বেশি সময়। বাংলাদেশে দুই দিনে প্রস্তুতি ম্যাচেও যদি সে ধারা বজায় থাকে, তবে কোচের কপালে ভাঁজ বাড়তে বাধ্য। আর বলা বাহুল্যা, মুখের হাসিটা তাতে চওড়া হবে হাথুরু সিংহের।

প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ান পেসাররা আহামরি পারফর্ম করতে পারেননি। তবে এর পেছনে অরেকটা কারন হতে পারে উইকেট। বাংলাদেশের বিবেচনা করেই হয়ত স্পিনিং উইকেট তৈরী করেছিলেন অজি কিউরেটর। তাই স্পিনাররাই দাম পাচ্ছেন বেশি। কিন্তু ইংল্যান্ডের পেসাররা যে দেখিয়ে দিয়েছিলেন, গতি আর সুইংয়ের অস্ত্র কখনোই ফেলে দেয়ার মতো নয়। এখানে তাই কিছুটা স্বস্তি পেতে পারেন তামিম-মুমিনুল-মুশিফিকরা।

এবার আলোচনায় স্টিভেন স্মিথের দলের শক্তিশালী দিক। স্মিথ একাদশ ও ডেভিড ওয়ার্নার একাদশের এ ম্যাচে দুর্দান্ত করেছেন স্পিনাররা। বাংলাদেশের কথা মাথায় রেখে একটু স্লো উইকেট বানানো হয়েছিল তা আগেই বলা হয়েছে। আর তার ফায়দা তুলেছেন প্রায় সবাই। অ্যাশটন অ্যাগার, নাথান লায়ন দুজনই ৪ উইকেট করে পেয়েছেন। অধিনায়ক স্টিভ স্মিথও অনেক দিন পর হাত ঘুরিয়ে লেগ স্পিনে নিয়েছেন ২ উইকেট। কিন্তু মূল লেগ সুয়েপসন অবশ্য ভালো করেননি। তবে নির্বাচকদের বোকা বানিয়েছেন জন হল্যান্ড। এই বাঁহাতি স্পিনার ১১ বলের এক স্পেলে ৪ উইকেট পেয়েছেন। কিন্তু বাংলাদেশ সফরে নেই তিনি।

টাইগার ক্যাপ্টেনের কপালে ভাঁজ পড়বে অজিদের মিডেল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং শৈলীতে। প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি পেয়েছেন পিটার হ্যান্ডসকম্ব। অন্যদের সুযোগ দিতে না চাইলে স্মিথও পেতে পারতেন সেঞ্চুরি। হিল্টন কার্টরাইট পেয়েছেন রানের দেখা। মিডল অর্ডারের অন্য নাম ম্যাক্সওয়েল বড় স্কোর না করলেও দুই ইনিংসেই ত্রিশোর্ধ্ব রান পেয়েছেন। বাংলাদেশের স্পিন ট্র্যাকে মিডল অর্ডারের এমন চারটি ইনিংসেই ম্যাচ থেকে ছিটকে ফেলতে পারে স্বাগতিকদের।

সূত্র: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে