আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > শিল্প-সাহিত্য > মোহাম্মদ আশিকুর রহমান নয়নের কবিতা ‘বোতামের শোক বনাম লজ্জা’

মোহাম্মদ আশিকুর রহমান নয়নের কবিতা ‘বোতামের শোক বনাম লজ্জা’

মোহাম্মদ আশিকুর রহমান নয়নের কবিতা 'বোতামের শোক বনাম লজ্জা'
মোহাম্মদ আশিকুর রহমান নয়ন

‘বোতামের শোক বনাম লজ্জা’

আছাড় খেয়ে ছিড়লো জামা,

পড়লো খসে বোতাম খানা।

প্যান্ট-জামা’র ধুলো ঝেড়ে,

ডাইনে-বায়ে চকিত চেয়ে।

যাক বাবা, কেউ দেখেনি

রয়ে গেছে মান খানি।

গায়ে-পায়ের ভুলে ব্যথা

মনে শুধু বোতামের কথা।

সাইকেলটা দাঁড় করিয়ে,

বোতাম খুঁজি ধুলো সরিয়ে।

প্রিয় সুন্দর, দারুন জামা,

গিফট দিয়েছিলো,জাপানী মামা।

খসা বোতাম চাই-ই চাই,

এমন বোতাম আর কই পাই?

এধার ওধার খুঁজলাম বেশ

পেলাম না অবশেষ !!

মন খারাপ করে ফিরলাম বাড়ি

জামা’র শোকে ভাতের সাথে আড়ি।

বিকাল বেলা আবার গেলাম

খুঁজে বোতাম নাহি পেলাম।

পেলাম বিস্ময়ের সাথে লজ্জা ভীষন

“মামা, বোতাম কি খুঁজে পেলি তখন?”

তাঁকিয়ে দেখি, পাশের বাড়ির খালা

হেঁসে মনে বাড়ালো জ্বালা।

কষ্টে আমি পাল্টা হেঁসে জিজ্ঞাসিলাম-

“কিসের বোতাম, কখন খুঁজলাম”?

“দুপুরবেলা, সাইকেল থেকে আছাড় খেলি

চকিত চেয়ে বোতামের খোঁজে ধুলো সরালি”।

“ভেবেছিলি, কেউ দ্যাখেনি কিছু

আমি ছিলাম ঘরের পিছু,

দেখেছি তখন, বলিনি তোকে

বললে তুই মরতি লজ্জ্বায়-শোকে”।

,”লজ্জা দিতে বাদ রাখলি কই?”

মনে আওড়ালাম এই।

বললাম মুখে- “নারে খালা,

যাচ্ছিলাম এদিক পানে

দাঁড়ালাম একটু এখানে।

খালা,আছিস কেমন তুই?

দেখা হয় না সপ্তাহ দুই।”

“ঘুরাস না কথা আর

বোতাম খুঁজতে শুরু কর।”

(শুষ্ক হেঁসে) না’রে খালা বাড়ি যাই

বোতামের আর দরকার নাই।

খালা, তোর ধরি পায়ে

কাউরে কিছু বলিস না’রে।

দিলাম হাঁটা জোর কদমে

পিছনে না তাকিয়ে শরমে।

ভুলে গেলাম বোতামের শোক

কামনা,যেন না জানে-কোনো লোক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে