আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > মাদকে আসক্ত ছিলো সালমান শাহ: হীরা

মাদকে আসক্ত ছিলো সালমান শাহ: হীরা

tanvir_hasan_hira

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

মায়ের বেপরোয়া আচরণ ও জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়তে থাকায় বাংলা চলচিত্রের অমর নায়ক সালমান শাহ আত্মহত্যা করেছিলেন বলে দাবি করেছেন তাঁর সাবেক শ্বশুর শফিকুল হক হীরা।

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক হীরা বলেন, অভিনয়ের মান কমে যাওয়ায় জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়তে থাকে সালমানের। এরপর মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে ফেনসিডিল এবং মদে আসক্ত হয়ে পড়েছিলো সে। এছাড়া মা নীলা চৌধুরীর বেপরোয়া আচরণও মন থেকে মেনে নিতে পারেনি। আর এসব কারণেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সালমান শাহ।

সালমানের আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে হীরা বলেন, ১৯৯৫ সালে সে (সালমান শাহ) কিছুদিনের জন্য এফডিসিতে ব্যান (নিষিদ্ধ) হয়েছিল। তারপর ’৯৬’র দিকে তার অবস্থা নিচের দিকে যেতে থাকে। ওর অভিনয়ের মান কমে যাচ্ছিল। কারণ ও ফেনসিডিল খেত। এরপর যখন সে হুইস্কি খাওয়া আরম্ভ করে, যেহেতু তার অভ্যাস ছিল না, তার শরীর সেটা নিচ্ছিল না। এছাড়া সালমানের হতাশা ছিল। আবার ‍মায়ের সঙ্গে ঝগড়া ছিল। মায়ের সঙ্গে থাকত না। আলাদা বাড়ি নিয়ে থাকত। নীলা চৌধুরী জাতীয় পার্টি করতেন। উনার সম্পর্কে যেসব কথাবার্তা আছে সেগুলো তো সবাই আপনারা জানেন। এটার জন্য সে (সালমান) ফেড আপ ছিল।

সালমান শাহের মা নীলা চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে হীরা বলেন, ‘সি (নীলা চৌধুরী) মাইট হ্যাভ ডান সো মেনি থিংস হুইচ হি (সালমান শাহ) ডিড নট লাইক। ৯৬ সালে হি (সালমান) ওয়াজ স্টিল ইয়াং। তখন সে বাংলাদেশের একজন স্বনামধন্য অভিনেতা। ২১ বছর আগে তার বয়স ৪২-৪৩ হয়ত ছিল। ও একজন নায়ক। তাঁর মা জাতীয় পার্টি করুক কিংবা পলিটিক্সের কারণে আউট অব কন্ট্রোল হয়ে যাক, সেটা সে পছন্দ করতো না।’

তিনি আরও বলেন, সে সময় ডিবি তদন্ত করেছে। সামিরা (সালমানের স্ত্রী), শাবনূর (চিত্রনায়িকা) সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।  কাজের বুয়া, সালমানের পালিত বাচ্চা, তিন বছর কি সাড়ে তিন বছর বয়স ছিল, তাকে পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।  তারপর ছয় মাস পর তো ডিবি রিপোর্ট দিয়েছে যে, এটা আত্মহত্যা। কিন্তু উনি (নীলা চৌধুরী) নারাজি দিলেন যে, ডিবি যে রিপোর্ট দিয়েছে সেটা আমরা মানি না।  তারপর সিআইডি তদন্ত করল।  দেড় বছর পর সিআইডিও একই রিপোর্ট দিল।’

আত্মহত্যার বিষয়টি শতভাগ নিশ্চিত বলেও দাবি করেন হীরা। এই নিশ্চয়তা কিভাবে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার বাবা ছিলেন একজন প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট। তিনি এটাকে অপমৃত্যু বলে স্বাক্ষর করেছেন। এটা যে অপমৃত্যু তিনি সেটা বুঝেছেন।

সম্প্রতি সালমান শাহ খুন হয়েছেন বলে যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী রাবেয়া সুলতানা রুবির ফেসবুকে ভিডিওবার্তা নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।   এরপর নীলা চৌধুরী রুবিকে দেশে ফিরিয়ে এনে জবানবন্দি নেওয়ার পাশাপাশি সালমানের শ্বশুরকেও জিজ্ঞাসাবাদের দাবি জানিয়েছেন। মামলাটির এখন তদন্তে আছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে