আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > দুই হাজার রিয়াল মওকুফের আবেদনে সাড়া দেয়নি সৌদি সরকার

দুই হাজার রিয়াল মওকুফের আবেদনে সাড়া দেয়নি সৌদি সরকার

দুই হাজার রিয়াল মওকুফের আবেদনে সাড়া দেয়নি সৌদি সরকার

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক :

এ বছর পূর্ণবার হজ গমনকারী প্রত্যেক হজযাত্রীকে ই-হজ ভিসা পেতে বাধ্যতামূলকভাবে সৌদি সরকার নির্ধারিত দুই হাজার রিয়াল পরিশোধ করতে হবে। অন্যথায় কারো ভিসা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে সৌদি সরকার।

এদিকে, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ধর্ম মন্ত্রণালয় কনসাল জেনারেল, জেদ্দা এবং কাউন্সিলের (হজ) মাধ্যমে সৌদি সরকারের কাছে ওই এন্ট্রি ফি মওকুফের আবেদন জানালেও সে আবেদনে সাড়া দেয়নি সৌদি সরকার।

ধর্ম মন্ত্রনালয়ের সহকারি সচিব (হজ-২) এস এম মনিরুজ্জামানের স্বাক্ষরে এ সংক্রান্ত এক জরুরি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এতদ্বারা সংশ্লষ্টি সকলরে অবগতরি জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ইতিপূর্বে আনুষ্ঠানিক ঘোষনা ছাড়া আকষ্মিকভাবে সৌদি সরকার এ বছরে পুনর্বার (২০১৫ ও ২০১৬ খ্রি. হজ পালনকারী) হজ গমনকারীদের ই-হজ পোর্টাল সিস্টেমে ভিসা আবেদন লজমেন্ট করার ক্ষেত্রে হজযাত্রী প্রতি এন্ট্রি ফি বাবদ ২ হাজার সৌদি রিয়াল হারে প্রদান করতে হবে মর্মে তাঁদের নিয়োগকৃত আইটি ফার্ম সিজেল-টেক কর্তৃক অনলাইন সার্ভারে বার্তা প্রদর্শন করছে।

উক্ত বিষয়ে তাৎক্ষনিক সমাধানের জন্য ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে ৩১ জুলাই বাংলাদেশ হজ অফিস, জেদ্দা-কে রাজকীয় সৌদি সরকারের সাথে উক্ত এন্ট্রি ফি স্থগিত/মওকুফের বিষয়ে আলোচনার জন্য অনুরোধ করা হয়।

এই আবেদনের প্রেক্ষিতে কনসাল জেনারেল, জেদ্দা এবং কাউন্সেলর (হজ), বাংলাদেশ হজ অফিস, জেদ্দা গত ২ অাগস্ট জানিয়েছে যে, সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব (ডেপুটি মিনিষ্টার) এর সাথে নোট ভারবালের মাধ্যমে আলোচনায় বসেন এবং পুনর্বার (২০১৫ ও ২০১৬ খ্রি. হজ পালনকারী) হজ গমনকারীদের ক্ষেত্রে আরোপিত হজযাত্রী প্রতি ২ হাজার সৌদি রিয়াল এন্ট্রি ফি স্থগিত/মওকুফ করার জন্য অনুরোধ জানান।

কিন্তু সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব (ডেপুটি মিনিষ্টার) তাঁদের অবহিত করেন যে, বর্ণিত এন্ট্রি ফি বিশ্বের সকল রাষ্ট্রের জন্য প্রযোজ্য। কোন একক দেশের ক্ষেত্রে এটি মওকুফ করার সুযোগ নেই।

এমএ/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে