আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আইন-মানবাধিকার > আইনমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেলের বক্তব্যে ক্ষোভ আইনজীবী সমিতির

আইনমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেলের বক্তব্যে ক্ষোভ আইনজীবী সমিতির

150317054438_bd_supreme_court_bar_association_logo_640x360_bbc_nocredit

প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক:

প্রধান বিচারপতি এবং সুপ্রিম কোর্ট নিয়ে সম্প্রতি আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুব আলমের  দেওয়া বক্তব্যকে দুঃখজনক উল্লেখ করে মাসদার হোসেন মামলার আলোকে অধস্তন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলাবিধির গেজেট প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি।

বুধবার (২ আগস্ট)  সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে সমিতির (বারের) পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই আহ্বান জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, বিচারকদের জন্য খসড়া বিধিমালা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা হচ্ছে। বিশেষ করে আইনমন্ত্রী এ ব্যাপারে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করেছেন। তিনি অধস্তন আদালতের বিচারকদের নিয়ন্ত্রণ ও শৃঙ্খলা বিধানে যে ক্ষমতা সংবিধানে রাষ্ট্রপতিকে দেয়া হয়েছে তা সুপ্রিম কোর্ট নিয়ে নিতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন। আইনমন্ত্রীর এ বক্তব্যের মাধ্যমে প্রধান বিচারপতি ও সুপ্রিম কোর্টের প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শিত হয়েছে। অবিলম্বে মন্ত্রীকে দুঃখ প্রকাশ করে আপিল বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী গেজেট প্রকাশের দাবি জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, বিচার বিভাগ নিয়ে প্রধান বিচারপতি নিজস্ব কোন বক্তব্য দেননি। প্রধান বিচারপতির বক্তব্য সারাদেশের আইনজীবীদের বক্তব্য। আইনের শাসন রক্ষায় তার এই বক্তব্য। কাজেই প্রধান বিচারপতি একা নয় সারা বাংলাদেশের বার সমিতি এবং আইনজীবীরা তার এই বক্তব্যের সঙ্গে একমত।

ষোড়শ সংশোধনীর পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর অ্যাটর্নি জেনারেলের দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘অ্যাটর্নি জেনারেল ৭২ এর সংবিধানে ফিরে যেতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন। আমি বলব ৭২ এর সংবিধানে প্রথম আঘাত আজকের সরকারই করেছে। তারাই কিন্তু চতুর্থ সংশোধনীর মাধ্যমে ৭২ এর সংবিধান পরিবর্তন করেছেন অথচ অ্যাটর্নি জেনারেল বলছেন আমরা ৭২ এর সংবিধানের ফিরে যেতে পারলাম না। এটা কি তিনি ইচ্ছা করে বলছেন, না অনিচ্ছাকৃতভাবে বলছেন। আমার মনে হয় সব জেনেশুনে তিনি এভাবে কথা বলছেন।

তিনি বলেন, আপিল আদালতের নির্দেশনায় কোথায় ৭২ এর সংবিধানের বরখেলাপ হলো। ৭২ এর সংবিধানের কি বলা আছে, সেখানে ১১৬ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, বিচার বিভাগে নিযুক্ত ব্যক্তিদের এবং বিচার বিভাগীয় দায়িত্ব পালনরত ম্যাজিস্ট্রেটদের নিয়ন্ত্রণ (কর্মস্থল নির্ধারণ, পদোন্নতি দান, ছুটি মঞ্জুরি ) ও শৃঙ্খলা বিধান সুপ্রিম কোর্টের উপর ন্যস্ত থাকবে। এই সংবিধানের কোথাও বলা নেই সংসদের হাতে থাকবে এটা। তাহলে কেন বিতর্ক সৃষ্টি করা হচ্ছে।

এ এস

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে