আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > শুক্রবারের হাতিরঝিল

শুক্রবারের হাতিরঝিল

১৯ মে, ২০১৭hatirjheel

আহমেদ রুমী, প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক;

সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবারে হাতিরঝিলে বাড়ছে দর্শনার্থীদের ভিড়। মনোরম পরিবেশে আনন্দময় কিছু সময় কাটাতে সব বয়সী মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন। আবার কেউ কেউ বাস কিংবা ওয়াটার ট্যাক্সিতে চড়ে ঘুড়ে দেখছেন পুরো হাতিরঝিল।

শুক্রবার হাতিরঝিল এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সকালে দর্শনার্থীর সংখ্যা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে জমতে শুরু করে হাতিরঝিল। ফলে চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হয় হাতিরঝিলের বাস ও ওয়াটার ট্যাক্সি সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে।

হাতিরঝিলের ৩নং সেতু সংলগ্ন কিছু গাছপালার ছায়ায় বসে সময় কাটাতে দেখা যায় বেশ কয়েকজন তরুণ-তরুণীকে। যাদের কেউ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, কেউবা আবার কর্মজীবী।

প্রতিচ্ছবির সঙ্গে কথা হয় বেশ কয়েকজন দর্শনার্থীর। বেসরকারি কর্মকর্তা আতিকুর রহমান তাদেরই একজন। হাতিরঝিলে এসেছেন স্বপরিবারে। তিনি জানালেন, পুরো সপ্তাহ অক্লান্ত পরিশ্রমের পর ছুটির দিনে সবাই একটু রিফ্রেশমেন্ট চায়। তাই, পরিবার নিয়ে এখানে চলে এলাম।

রাজধানীর এতো বিনোদনকেন্দ্র থাকতে হাতিরঝিলে কেন? এ প্রশ্নে তিনি বলেন, এখানকার পরিবেশটা বেশ ভাল। দূষণ কম, তাছাড়া চারপাশটা বেশ ঠান্ডা। ঢাকার মধ্যে এমন পরিবেশ আর কোথায়?

হাতির ঝিলের কাছেই বেসরকারি ইস্ট-ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়। তাই, সেখানকার ছাত্রছাত্রীরা একটু সময় পেলেই দল বেঁধে চলে আসেন আড্ডা দিতে। ইস্ট-ওয়েস্টের ছাত্রী মেঘনা বলেন, সপ্তাহজুড়েই ভার্সিটিতে ক্লাস-প্রেজেন্টেশন-অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে বেশ চাপে থাকি। তাই, শুক্রবার মন হালকা করতে দল বেঁধে এখানে এসেই আড্ডা-ফুর্তি করি।

hatirjheel-2এদিকে, এতো আনন্দ-ফুর্তির আড়ালে হাতিরঝিলের কিছু সমস্যার কথাও জানালেন আরেক দর্শনার্থী সোহেল। প্রতিচ্ছবিকে তিনি বলেন, নিজের মতো করে কিছুটা সময় কাটাতে মাঝেমধ্যে এখানে আসতে ভালোই লাগে। কিন্তু, কিছু সমস্যার কারণে প্রায়ই ভোগান্তিতে পড়ি।

কি ধরণের ভোগান্তি জানতে চাইলে তিনি বলেন, যতবার এখানে এসেছি প্রতিবারই হয়তো হিজড়া অথবা বেদেনিরা এসে ঘিরে ধরে। টাকা না দিলে যাচ্ছেতাই ব্যবহার করে। কখনো কখনো তো সম্মান নিয়েও টানাটানি পড়ে যায়। এছাড়া বখাটে-ছিনতাইকারীও দেখা যায়। এভাবে চলতে থাকলে তো দর্শনার্থীরা নিরাপত্তাঝুঁকিতে ভুগবে।

এছাড়া, হাতিরঝিলের চক্রাকার বাস সার্ভিস ও ওয়াটার ট্যাক্সি সার্ভিসের ভাড়া কমানোর পরিবর্তে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা নিয়েও আপত্তি আছে দর্শনার্থীদের।

এমন অব্যবস্থাপনা সম্পর্কে প্রশ্ন করলে হাতিরঝিলের চক্রাকার বাস কাউন্টার ও ওয়াটার ট্যাক্সি সেবা প্রদানকারীরা প্রতিচ্ছবিকে জানান, দর্শনার্থীদের অভিযোগের কথা তারা কর্তৃপক্ষের কাছে বলেছেন। কর্তৃপক্ষ দ্রুত ব্যবস্থা নেবে বলে আশ্বাস দিয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে