আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > মায়ের সাথে শেষ ফোনালাপ নিয়ে আফসোস করেন ডায়নার ছেলেরা

মায়ের সাথে শেষ ফোনালাপ নিয়ে আফসোস করেন ডায়নার ছেলেরা

মায়ের সাথে শেষ ফোনালাপ নিয়ে আফসোস করেন ডায়নার ছেলেরাপ্রতিচ্ছবি ডেস্ক:

মায়ের সাথে শেষবার ফোনালাপ নিয়ে আফসোস করেছেন ডায়নার দুই ছেলে প্রিন্স হ্যারি ও প্রিন্স উইলিয়াম।

মায়ের সাথে শেষ ফোনালাপ নিয়ে আফসোস করেন ডায়নার ছেলেরা১৯৯৭ সালের ৩১শে আগস্ট মায়ের ফোন কলটি খুব তাড়াতাড়িই রেখে দিয়েছিলেন তারা।

প্রিন্স উইলিয়ামের বয়স তখন ছিল ১৫ বছর আর প্রিন্স হ্যারির বয়স ছিল ১২ বছর।

প্রিন্সেস ডায়নার বিশতম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে যে প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করা হয়েছে সেখানে নিজের মাকে নিয়ে কথা বলেছেন উইলিয়াম ও হ্যারি। প্রিন্স হ্যারি বলেছেন, “সেদিন এত তাড়াতাড়ি ফোনটা রেখে দিয়েছিলাম যে তা মনে করে সারাজীবন আমার আফসোস হবে”। উইলিয়াম ও হ্যারি বলেছেন, তাঁদের মা যেমন তাদের ‘দুষ্টুমি’ করতে উদ্বুদ্ধ করেছেন তেমনি কিভাবে ভালো মানুষ হওয়া যায় সে শিক্ষাও তিনি দিয়েছেন।

প্রিন্সেস ডায়না খুব সুন্দর সাবলীল ভাবে মজা করে ছেলেদের বড় করেছেন। সেই কথাগুলো ফুটে উঠেছে এই প্রামাণ্যচিত্রে।

প্রিন্স হ্যারি বলেছেন তাঁর মা ছিলেন ‘পুরোদমে একজন শিশু’, যিনি রাজপ্রাসাদের বাইরের বাস্তব জীবন সম্পর্কে জানতেন। মা ও ছেলের যেসব ছবি আগে কখনো প্রকাশ হয়নি তা এই প্রামাণ্যচিত্রে প্রকাশ করা হবে। ছেলেদের জীবনে মায়ের প্রভাব কেমন তাও দেখানো হবে।

মায়ের সাথে শেষ ফোনালাপ নিয়ে আফসোস করেন ডায়নার ছেলেরাএই তথ্যচিত্রে প্রিন্সেস ডায়ানার ছবি রয়েছে এইচআইভি আক্রান্ত রোগীদের সঙ্গে, শিশু কল্যাণ, গৃহহারার মানুষ ও ভূমি মাইনের নিষিদ্ধকরণ সংক্রান্ত সমস্যাগুলো নিয়ে প্রিন্সেস ডায়ানার যে ভূমিকা তা প্রামাণ্যচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এবং সঙ্গে তাঁর দুই ছেলেও রয়েছেন।

এই অনুষ্ঠান মায়ের কথা ভাবাবে এবং দুঃখ দেবে। তার সন্তানেরা জানাবেন তাদের মায়ের সাথে তাদের দিনগুলোর কথা

তবে ডিউক অব ক্যামব্রিজ বলেছেন মায়ের মৃত্যুর আগে ফোনে তাদের শেষ যে আলাপ হয়েছিল তা ‘সারাজীবন মনের মধ্যে বয়ে বেড়াতে হবে’।

সেদিন তারা ছিলেন স্কটল্যান্ডে রানীর বাড়ি বালমোরালে, চাচাতো ভাইবোনদের সাথে খেলাধুলায় ব্যস্ত ছিলেন প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রিন্স হ্যারি।

“হ্যারি এবং আমি ফোন রাখার জন্য খুব ব্যস্ত ছিলাম এবং খুব তাড়াতাড়ি ‘বিদায়, পরে দেখা হবে’ বলে ফোনটা রেখে দিলাম….যদি আমি যদি জানতাম এরপর কী ঘটতে যাচ্ছে, ওভাবে ফোনটা রেখে দিতাম না”- বলেন প্রিন্স উইলিয়াম।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে