আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > বিনোদন-সংস্কৃতি > সাইফের খোলা চিঠির জবাব দিলেন কঙ্গনা

সাইফের খোলা চিঠির জবাব দিলেন কঙ্গনা

প্রতিচ্ছবি বিনোদন ডেস্ক:

দীর্ঘ দিন ধরে চলা বিতর্কে সাইফ আলি খানকে একহাত নিলেন কঙ্গনা রানাউত। দিন কয়েক আগে একটি খোলা চিঠিতে সাইফ লিখেছিলেন, মায়ের জন্যই তিনি বলিউডে সুযোগ পেয়েছেন। তবে এ ক্ষেত্রে জিনের কৃতিত্ব বেশি।

এবার সাইফের সেই বক্তব্যকে কটাক্ষ করে কঙ্গনা এক টুইটে বলেন, তিনিও জীবনের অনেকটা সময় জিনতত্ত্ব নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। কিন্তু বুঝতে পারেননি, কোন তত্ত্বে হাইব্রিড ঘোড়ার সঙ্গে এক জন প্রকৃত শিল্পীকে তুলনা করা যায়!

এখানেই থেমে থাকেননি নায়িকা। সাইফের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমি জানি না কীভাবে একজন শিল্পীর কঠোর পরিশ্রম, অভিজ্ঞতা, দক্ষতা, মুন্সিয়ানা, উৎসাহ, শৃঙ্খলা আর ভালবাসা পরিবারের জিন থেকে আসে। যদি তোমার কথাই সত্যি হয়, তাহলে তো আমার বাড়ি ফিরে কৃষক হয়ে যাওয়া উচিত।’

আইফা-র মঞ্চে কঙ্গনাকে নিয়ে হাসিঠাট্টা করে বিপাকে পড়ে প্রকাশ্যেই কঙ্গনার কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন করণ জোহর, বরুণ ও সাইফ আলি খান। সেই সময় সাইফ দাবি করেন, কঙ্গনার সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করে তিনি বিষয়টি মিটিয়ে নিয়েছেন।

কিন্তু কঙ্গনা জানান, নেপোটিজম শুধুমাত্র তার একার বিষয় নয়। এটা একটি প্রচলিত অভ্যাস। যেটা মানুষের প্রতিভার থেকেও বেশি আবেগের উপর কাজ করে।

শুধু তাই নয়, সাইফের সুপ্রজননতত্ত্বকে খোঁটা দিয়ে কঙ্গনা লেখেন, ‘আমি বিশ্বাস করি মানুষ এখনও সেই ডিএনএ খুঁজে পায়নি যা দিয়ে মানবিকতা পরবর্তী প্রজন্মতে বাহিত হয়। যদি সত্যিই তাই হত, তা হলে শেক্সপিয়ার, বিবেকানন্দ, দ্য ভিঞ্চি, আইনস্টাইন, স্টিফেন হকিন্সের ভালো গুণগুলোও বার বার আমরা ফিরে পেতাম।’

বিতর্কের শুরুটা হয়েছিল আইফা মঞ্চে থেকে। হাস্য-কৌতুক চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার নিতে মঞ্চে উঠেছিলেন বরুণ। তখনই সাইফ তাকে বলেছিলেন, ‘তুমি এখানে এসেছ তোমার বাবার জন্য’। বরুণের চটজলদি জবাব, ‘তুমিও এখানে এসেছ তোমার মায়ের সুবাদে।’

করণ জোহরও জোর গলায় স্বীকার করে নেন, তার পিছনেও ছিলেন তার বাবা যশ জোহর। এরপর তিন জনে এক সুরে চেঁচিয়ে উঠে বলেন, ‘নেপোটিজম রকস্’। রঙ্গরসের শেষ হয়, ‘বোলি চুরিয়া, বোলে কঙ্গনা’ গান গেয়ে, করণের টিপ্পনিতে।

এরপরেই করণের মন্তব্য ছিল, ‘কঙ্গনা কথা না বললেই ভালো হয়।’ কিন্তু তিন নায়কের এই কটূক্তি ভালো চোখে দেননি টুইটারেত্তিরা। ট্রোলিংয়ের শিকার হতে হয় তিনজনকে। অবশেষে ক্ষমাও চেয়েছিলেন তিনজন।

এসএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে