আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > বিমান ছাড়া ওদের চলেই না

বিমান ছাড়া ওদের চলেই না

বিমান ছাড়া ওদের চলেই নাপ্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

উড়োজাহাজে করে বিদেশ বিভূঁই এ পাড়ি জমাতে পারেন সহজেই। অনেকে তো আবার দিব্যি বরযাত্রীদের বিমানে নিয়ে হাজির কনের বাড়িতে। আবার আকাশের মাঝে কৌশলী পাইলট নানা রকমের খেলাধুলায় ব্যস্ত থাকেন বিমান নিয়ে।  তবে ভাবুন তো এমন একটি শহর যেখানে প্রত্যেক বাড়িতে রয়েছে বিমান। বাড়ির সামনে রয়েছে বিমানের গ্যারেজ। আর আশেপাশে ঘুরতে যান বিমানে চড়ে। কেমন স্বপ্নের মত শোনাচ্ছে ব্যাপারটি? আসলে স্বপ্ন নয় যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার স্প্রুস ক্রিক শহর এটি। এখানে প্রায় অধিকাংশ বাসিন্দা বিমানের মালিক। গাড়ির গ্যারেজের বদলে তাদের রয়েছে বিমানের গ্যারেজ। শহরের অধিবাসী প্রায় পাঁচ হাজার। শহরটিতে য়েছে ১৩০০-র মতো বাড়ি। আর তাদের জন্য ৭০০টির মতো এরোপ্লেন রয়েছে এই শহরে।

বিমান ছাড়া ওদের চলেই নাশহরটির কেন্দ্রে রয়েছে ৪০০০ ফুট লম্বা ও ৫০০ ফুট চওড়া একটি রানওয়ে। সেখানে বিমান চালিয়ে নিয়ে উড়ে যান আকাশে। সেই শহরে রয়েছে বেশ কিছু এয়ারক্লাব, এরোপ্লেন ভাড়া দেয়ার সংস্থা, ফ্লাইট ট্রেনিং শেখানোর বন্দোবস্ত ও ২৪ ঘণ্টার কড়া সিকিউরিটি ব্যবস্থাও। অনেক নামীদামি লোক বিভিন্ন সময় বসবাস করেছেন স্প্রুস ক্রিকে।

মাঝে মাঝেই বিখ্যাত সব ব্যাক্তিরা চলে আসেন এই শহরে। শহরের বাড়িতে বাড়িতে দেখা যাবে বোয়িং, কেসনাস, পাইপার্স, পি-৫১ মাস্টাং, ফরাসি ফগ ম্যাজিস্টার, এমনকি রাশিয়ান মিগ-১৫ এর মতো প্লেনও দেখা যাবে বাড়িগুলির লাগোয়া হ্যাঙ্গারগুলোতে।

বিমান ছাড়া ওদের চলেই নাপ্রতি রবিবার রবিবার স্থানীয় বাসিন্দারা স্থানীয় রানওয়েটির কাছে যার যার প্লেন নিয়ে সমবেত হন। তারপর ছোট ছোট দল বেঁধে উড়ে যান নিকটবর্তী এয়ারপোর্টটিতে প্রাতঃরাশ সারতে! এই জনপ্রিয় ঐতিহ্যটি এখানকার বাসিন্দাদের কাছে ‘স্যাটারডে মর্নিং গ্যাগেল’নামেও পরিচিত। এলাকার অধিবাসীরা সবাই বিত্তশালী। বেড়াতেও আসেন অনেকে অনেকসময়। এখানে বাসবাসকারীর মধ্যে পাইলট, চিকিৎসক, আইনজীবী বা জমি কেনাবেচার ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিরা রয়েছেন।

এন টি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে