আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অপরাধ > বেনাপোলে মেলার নামে চলছে লটালীর রমরমা ব্যবসা

বেনাপোলে মেলার নামে চলছে লটালীর রমরমা ব্যবসা

benapole-mela-lattary-02

প্রতিচ্ছবি বেনাপোল প্রতিনিধি :

বেনাপোলের বল ফিল্ডে গ্রামীণ শিল্প ও বাণিজ্য মেলার নামে চলছে র‌্যাফেল ড্র‘ র অবৈধ লটারীর রমরমা ব্যবসা। শুধু অবৈধ ভাবে লটারীর টিকিট বিক্রিই নয়, তা আবার আইন লংঘন করে কেবল টিভি নেটওয়ার্কেও মাধ্যমে সম্প্রচার করা হচ্ছে। দৈনিক উল্লাস নামের এ টিকেট বিক্রি হচ্ছে লোভনীয় পুরস্কারের কথা বলে।

আকর্ষণীয় পুরস্কারের কথায় প্রলুব্ধ হয়ে তার পিছনে ছুটছে স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী ও গৃহবধু থেকে শুরু করে নানা বয়সী লোকজন। এতে সবচেয়ে বেশি আর্থিক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে নিম্ম আয়ের লোকজন। দৈনিক উল্লাসের জন্য টাকা যোগাড় করতে গিয়ে চুরি ছিনতাই বেড়ে গেছে সীমান্ত অঞ্চলে।

প্রতিদিন প্রকাশ্যে ২ শত ৫০টি ইজি বাইকের মাধ্যমে যশোরের শার্শা, ঝিকরগাছা, চৌগাছা ও সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার বিভিন্ন বাজারসহ গ্রাম-গঞ্জে অবৈধ এই লটারীর টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে সাধারণ লোকজনের নিকট থেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা

স্থানীয় বল্ডফিল্ড মাঠে ৯ জুলাই বেনাপোল পৌর সভার আয়োজনে শুরু হয় মাসব্যাপী গ্রামীন শিল্প ও বাণিজ্য মেলা। শুরুর দিন থেকেই এর মুল বিষয় হয়ে ওঠে র‌্যাফেল ড্র‘র নামে দৈনিক লটারী। মেলায় রয়েছে প্রায় দেড় শতাধিক বিভিন্ন পণ্যের স্টল। মেলায় শিশুদের জন্য কয়েকটি রাইড স্থাপন করা হলেও পুরো মেলাই চলছে র‌্যাফেল ড্র’র নামে লটারী রমরমা ব্যবসা। প্রতিদিন মাইকের মাধ্যমে আকর্ষনীয় পুরস্কারের কথা প্রচার করে শিশু থেকে নানা বয়সী মানুষের মাঝে গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত বিভিন্ন সড়ক, অলিগলি ও হাটবাজার এলাকায় অন্ততঃ দুই থেকে আড়াই লাখ লটারীর টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে। প্রতিটি টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে ২০ টাকা করে।

একজন দিন মজুর দৈনিক আয় করছে ২০০ টাকা আর উল্লাস বাবদ খরচ করছে ওই ২০০ টাকা। রাতে বাড়ি ফিরছে খালি হাতে, বাজার করার কোন টাকা থাকছে না। গ্রামের মহিলারা ঘরের চাল বিক্রি করে উল্লাস কিনছে। কোমলমতি শিশুরাও ঝুকছে উল্লাসের দিকে। রাতে ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ার ব্যাঘাত সৃষ্টি করছে এই উল্লাস।

মেলা উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব শুকুমার দেবনাথ জানান, মেলায় লটারীর অনুমোদন আছে কিনা তার জানা নেই। মেলা কর্তৃপক্ষ মেলাটি বিল্লাল হোসেন নামে এক ব্যবসায়ীকে ইজারা দিয়েছেন।

 সাজেদুর রহমান / আর এইচ

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে