আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের তদন্ত করতে চায় শ্রীলঙ্কা

বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের তদন্ত করতে চায় শ্রীলঙ্কা

 

বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের তদন্ত করতে চায় শ্রীলঙ্কা

প্রতিচ্ছবি স্পোর্টস ডেস্ক:

বিতর্কটা উস্কে দিয়েছিলেন বিশ্বকাপজয়ী লংকান অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গা। এ নিয়ে ক্রিকেট অঙ্গনে কম জল ঘোলা হয়নি। এরইমাঝে ভারতীয় কয়েকজন ক্রিকেটারের সমালোচনার মুখে পড়েছেন ৯৬’র বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক। তবে এবার তার পাশে দাড়ালেন শ্রীলঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রী দয়াসিরি জয়াসেকেরা।

২০১১ ক্রিকেট বিশ্বকাপে দলের বিতর্কিত পরাজয় নিয়ে তদন্তের দাবির প্রতি বুধবার নিজের সমর্থন ব্যক্ত করেছেন শ্রীলঙ্কান  জয়াসেকেরা।

মুম্বাইর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ফাইনালে ভারতের কাছে ৬ উইকেটের পরাজয়ে বিস্মিত হয়েছিল ক্রিকেট পাগল দ্বীপ রাষ্ট্রটি। ম্যাচের পরপরই পদত্যাগ করেছিলেন তৎকালীন শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা।

লঙ্কানরা ইচ্ছে করেই ম্যাচটি ছেড়ে দিয়েছিল বলে সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী সন্দেহ প্রকাশ করার পর থেকেই দুঃখজনক সে পরাজয়ের বিষয়ে চাপ বাড়ছে।

কলম্বোতে ক্রীড়ামন্ত্রী দয়াসিরি জয়াসেকেরা সাংবাদিকদের বলেন, ‘অভিযোগ তদন্তের একটা ভিত্তি আছে। যত তাড়াতাড়ি আমি একটি লিখিত অভিযোগ পাব, তত তাড়াতাড়ি তদন্ত শুরু করব।’

প্রসঙ্গত, ম্যাচটিতে আগে ব্যাটিং করে শ্রীলংকা নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৭৪ রান সংগ্রহ করেছিল। এরপর দ্রুত (১৮ রানে) ভারতীয় ব্যাটিং সেনসেশন শচীন টেন্ডুলকার ফিরে গেলে ম্যাচের লাগাম চলে আসে লঙ্কানদের হাতে। কিন্তু শ্রীলঙ্কার দুর্বল বোলিং ও ফিল্ডিংয়ের কারণে নাটকীয়ভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ভারত।

স্থানীয় গণমাধ্যমে ‘ম্যাচটিতে বেশ কিছু ঝামেলার বিষয় কাজ করেছে’ বলে তৎকালীন ক্রীড়ামন্ত্রী সে সময় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন।

ক্রীড়ামন্ত্রীর সঙ্গে কোনো প্রকার আলোচনা ও অনুমোদন ছাড়াই শেষ মুহূর্তে শ্রীলঙ্কা দলে চারটি পরিবর্তন আনা হয়েছিল।

কোনো খেলোয়াড়ের নাম উল্লেখ না করে তৎকালীন ক্রীড়ামন্ত্রী আলুথগামাগে বলেছিলেন, ‘সবচেয়ে সিনিয়র খেলোয়াড়ের আচরণ নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল। ম্যাচ চলাকালে মাঠে পাঠানো দিক নির্দেশনা মানা হয়নি।’

সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ওই ম্যাচ শেষে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু তদন্ত থামিয়ে দেয়া হয়।
গত শুক্রবার দেশটির সাবেক অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গা আলোচিত ম্যাচটি সম্পর্কে তদন্তের দাবি জানান।

দুর্নীতি বিরোধী তদন্তে সহযোগিতা না করায় ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) গত বছর লঙ্কান বোর্ডের শীর্ষ কর্মকর্তা জয়ানন্দা ওয়ার্নাবীরাকে তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে।

অতীতেও শ্রীলঙ্কান খেলোয়াড় ও আম্পায়ারদের বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু ওয়ার্নাবীরাই প্রথম শীর্ষ স্থানীয় কর্মকর্তা যিনি দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন এবং শাস্তি পেয়েছেন।

আই এম / এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে