আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রাজশাহী > বগুড়ার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

বগুড়ার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

209217_14

প্রতিচ্ছবি বগুড়া প্রতিনিধি:

বগুড়ায় বন্যা পরিস্থিতির ক্রম উন্নতি হচ্ছে । যমুনা নদীর পানি দ্রুতই কমতে শুরু করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ত্রান বিতরণে জীবন মানেরও কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বন্যার্তদের মাঝে ২৮৫ মেট্রিক টন চাল, তিন লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবারসহ অন্যান্য ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। চুরি ডাকাতি প্রতিরোধে পুলিশ নৌ ও স্প্রীড বোর্ড টহল বাড়িয়েছে। বন্যা কবলিত এলাকায় ১৩ টি মেডিকেল টিম স্বাস্থ্য সেবা দিচ্ছে।

বন্যা কবলিত এলাকা থেকেও পানি নেমে যাচ্ছে। বর্তমানে যমুনার পানি বিপদ সীমার ০৩ সেন্টিমিটার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি দ্রুত কমে যাওয়ায় যমুনায় প্রবল স্রোতে নদী ভাঙ্গন শুরু হয়েছে।

সরকারী হিসেবে, বগুড়ার ৩ উপজেলার ৯৩ টি গ্রাম বন্যা কবলিত হয়ে প্রায় ১৭ হাজার ২৪৫টি পরিবারের ৯০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে সাড়ে ৩ হাজার পরিবার। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে সারিয়কান্দি উপজেলা।

বন্যা কবলিত ৩টি উপজেলায় ৫ হাজার ৮৫ হাজার হেক্টর জমরি ফসল পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে।

এছাড়া ৪০৫ মেট্রিক টন খড় ও ৪৬০ মেট্রিক টন ঘাস বিনষ্ট হয়েছে। বন্যায় ৩টি উপজেলায় ১হাজার ২৪৫টি নলকুপ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এরমধ্যে ১৮৪টি মেরামত করা হয়েছে এবং নতুন করে ৪০টি টিউবয়েল স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া বাঁধে আশ্রিতদের জন্য ৯০টি ল্যান্টিন স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর পানি বিশুদ্ধকরণের জন্য ১৮শ বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করেছে। বন্যার কারণে ৯১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি প্রবেশ করায় সেগুলো এখনও বন্ধ রয়েছে। জেলায় ৬০ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা ৫ কিলোমিটার পাকা রাস্তা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সরকারীভাবে বন্যার্তদের মাঝে ২৮৫ মেট্রিক টন চাল, তিন লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবারসহ অন্যান্য ত্রান সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

এছাড়া প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোকাবেলায় ৫৫০ মেট্রিক টন জিআর চাল ও ১২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ রয়েছে।

আমজাদ হোসেন মিন্টু / আর এইচ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে