আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > কমছে জাহাজ ও কন্টেইনার জট, দ্রুত পণ্য খালাসের দাবি

কমছে জাহাজ ও কন্টেইনার জট, দ্রুত পণ্য খালাসের দাবি

কমছে জাহাজ ও কন্টেইনার জট, দ্রুত পণ্য খালাসের দাবি

প্রতিচ্ছবি চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :

চট্টগ্রাম বন্দরের বহিনোঙ্গরে জাহাজ জট কমছে। একই সাথে কমেছে কন্টেইনার জটও। তবে বন্দর ব্যবহারকারীরা জট সমস্যার সমাধানে কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

জাহাজে কনটেইনার ওঠা-নামানোর ইকুইপমেন্ট নষ্ট হয়ে যাওয়া এবং ডেলিভারী কমে যাওয়ার কারনে ভয়াবহ কনটেইনার জট তৈরী হয়েছে বলে ধারণা করছে বন্দর ব্যবহারকারীরা।

এমনকি বন্দরে জাহাজের অবস্থান সময় বাড়ার পাশাপাশি সময়মতো পণ্য আমদানি-রপ্তানী নিয়ে উদ্বিগ্ন ব্যবসায়ীরা। বন্দরের এই কনটেইনার জটকে দেশের অর্থনীতির জন্য মারাত্মক অশনি সংকেত বলে মনে করছেন তারা।

আর বন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে কিছুটা উন্নত হওয়ার কথা। চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রশাসন ও পরিকল্পনা বিষয়ক সদস্য জাফর আলম বলেন, ‘বন্দরের ভিতরে বড় কোনো কন্টেইনার জট তৈরি হয়নি। ঘুর্ণিঝড় মোরা ও ঈদের ছুটির কারণে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। বহিনোঙ্গরে জাহাজ বেড়ে গিয়েছিল। তবে, যতটা সমস্যা হওয়ার কথা ছিল তা হচ্ছে না। এখন জাহাজ ও কন্টেইনার জট অনেকাংশেই আয়ত্বে চলে এসেছে। প্রতিদিনই সাড়ে তিন থেকে চার হাজার কন্টেইনার ডেলিভারি দেয়া হচ্ছে।’

দেশের আমদানি রপ্তানী বাণিজ্যের ৭৫ শতাংশ পরিবাহিত হয় চট্টগ্রাম বন্দরের মাধ্যমে। জাহাজের মাধ্যমে আনা পণ্য ওঠা-নামা এবং বন্দরে গুছিয়ে রাখা ও খালাস করার জন্য ব্যবহার করা হয় বন্দরের ইকুইপমেন্ট। এসব ইকুইপমেন্টের সক্ষমতার উপর নির্ভর করে বন্দরের প্রবৃদ্ধি।

কিন্তু বন্দরে ব্যবহৃত প্রধান ইকুইপমেন্ট চারটি কী গ্যান্ট্রি ক্রেনের মধ্যে দুটি জাহাজের ধাক্কায় নষ্ট হয়ে যাওয়ায় দিন দিন বাড়ছে জাহাজ জটের পাশাপাশি কন্টেইনার জট। এই জটের প্রভাব পড়েছে বেসরকারি ১৬টি কনটেইনার ডিপোতেও।

বন্দর ব্যবহারকারীরা বলছেন বন্দরের গতি বাড়াতে এবং দ্রুত কন্টেইনার হ্যান্ডলিং বাড়াতে নতুন নতুন আরো কী গ্যান্ট্রি ক্রেনের পাশাপাশি টার্মিনাল বাড়ানোর দরকার।

এদিকে, চট্টগ্রাম বন্দরে ৩৪ হাজার কনটেইনার ধারণ ক্ষমতার জায়গায় এখন কনটেইনার আছে প্রায় ৪০ হাজার। ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত কনটেইনারের কারণে কনটেইনার ওঠা-নামা, স্থানান্তর এবং খালাসের কাজ গতিশীল রাখা যাচ্ছে না। জাহাজগুলোকে জেটিতে আসার আগে বর্হিনোঙ্গরে ১০দিন অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বন্দরের কার্যক্রম ২৪ ঘন্টা খোলা রেখে কনটেইনার জট কমাতে পন্য খালাসের গতি আরো বাড়ানোর দাবি ব্যবসায়ীদের।

 

জয় নয়ন/এ আর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে