আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > রাজনীতি > বিএনপির ইমেজ ড্যামেজ হয়ে গেছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপির ইমেজ ড্যামেজ হয়ে গেছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপির ইমেজ ড্যামেজ হয়ে গেছে: ওবায়দুল কাদের

প্রতিচ্ছবি যশোর প্রতিনিধি:

বিএনপির আন্দোলনের হুমকিকে আষাঢ়ের তর্জন গর্জন’ বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘একটি দল আছে তারা ৮ বছরে ৮দিনও রাজপথে নামতে পারেনি।

তারা বলে, ঈদের পর মাঠে নামবে। গত ৮ বছরে ১৭টা ঈদ চলে গেছে; কিন্তু মরা গাঙ্গে কি জোয়ার এসেছে? এই ঈদের পরও ১৪দিন চলে গেছে। তারা বলে, এই দিন না ওই দিন; এই বছর না ওই বছর; এই ঈদ না ওই ঈদের পর আন্দোলন হবে। কিন্তু সব আষাঢ়ের তর্জন গর্জনের মতই।‘

সোমবার দুপুরে যশোর ঈদগাহ ময়দানে যশোর জেলা ছাত্রলীগের ১৭তম সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

আগামী নির্বাচনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী মনোনয়নের কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, যাদের ইমেজ ড্যামেজ হয়ে গেছে, ভাবমূর্তি নষ্ট হয়ে গেছে, জনগনের কাছে যাদের গ্রহণযোগ্যতা নেই তারা নির্বাচনে মনোনয়ন পাবেন না।

দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কয়েকটি জরিপ করাচ্ছেন। এর মাধ্যমে গ্রহণযোগ্যদের মনোনয়ন দেয়া হবে। কিন্তু এই মনোনয়ন নিয়ে প্রতিযোগিতা যেন ঘরের মধ্যে ঘর তৈরি না করে। যেন হানাহানি, রক্তারক্তি না হয়। যারা এ কাজ করবেন, তাদের মনোনয়ন হবে না।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্রলীগের স্বকীয়তা-নিজস্বতা রয়েছে। ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা ছাড়া আর কোনো নেতার স্বার্থরক্ষার পাহারাদার হতে পারে না। তোমরা কোনো বিভক্তির মধ্যে যাবে না।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বিএনপি নির্বাচনে না এসে ভুল করেছে। সেই ভুলে তারা হতাশ। মির্জা ফখরুল সাহেব এখন শুধু কাঁদেন। আমি বলি আপনারা তো ভাল আছেন। আপনার ওপর চোরাগোপ্তা হামলা হয়েছে। আহত হননি।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, আমাদের সেদিন রাজপথে রক্তাক্ত করা হয়েছিল। বরিশাল খুলনা, সাতক্ষীরা ও ঈশ্বরদীতে যেতে বাঁধা দেওয়া হয়েছিল। বিএনপির আমলে বাংলাদেশ রক্তের নদী হয়েছিল। অশ্রু দরিয়া হয়ে গিয়েছিল।

২০০১-২০০৫ সালে কত গুম, খুন হয়েছিল, ভুলে গেছেন। আপনারা কাঁদছেন, আমাদের কাঁদতে কাঁদতে চোখের জল শুকিয়ে গেছে। ফখরুল সাহেব ২০০১-২০০৫ সাল আর আজকের অবস্থা মিলিয়ে নিন। সেইদিন ছিল আমাদের কান্না। আর আজ আপনারা মায়াকান্না করছেন।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, সদস্য এসএম কামাল হোসেন,

সাজেদ রহমান / আর এইচ / এম এম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে