আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > শিল্প-সাহিত্য > সোমা দত্তের কথোপকথনধর্মী গল্প- মন কে বলছি

সোমা দত্তের কথোপকথনধর্মী গল্প- মন কে বলছি

18194816_10213867399347385_646169181382625267_n
সোমা দত্ত

মন, তোমাকে বলছি শোনো। এলোমেলো কেন আজ? কেমন যেন খাপছাড়া! একটু কি উদাস নাকি কিছুটা ভাবুক!? এই কেমন কেমন তোমাকে মানায় না, জানো না তুমি!? তুমি আজ ভালো না খারাপ আছো তা জানতে চাই না। তবে তোমার যেকোনভাবে থাকার উপর বোধকরি আমার থাকাটাও নির্ভর করে। তুমি কি তা বোঝ!

মন বলছে

জানি জানি, বুঝিও যে সবটাই। বলছি আমি, শোনো এবারে তুমি। তোমার মাঝে বিরাজ আমি, আমায় নিয়েই চলছো তুমি। আমাকে ছাড়া তুমি, আর তোমায় ছেড়ে আমি হবো না কেউ কারো কাছেই দামী।

জীবন যখন বিষিয়ে যায় দুঃসহ যন্ত্রণায়, অসহনীয় কষ্টে আর অবর্ণনীয় অপমানে…তখন আমি হয়ে যাই বিবর্ণ! সাদা, কালো অথবা কখনও ধূসর চাদরে মুড়ে নেই নিজেকে, পুরোটা। সেই জীবনই যখন থাকে আনন্দ আর সুখে উদ্বেলিত, জীবদ্দশা হয়ে ওঠে রঙিন ঝলমলে। তখন সাতটি রং এর মাঝে নিজেকে খুঁজে পাই আমি, উড়ন্ত প্রজাপতির মত।

তুমি হাসলে, আমিও যে হাসি, খিলখিলিয়ে। আর তুমি কাঁদলে, জানো আমিও যে কাঁদি গুংগিয়ে। তোমার দোমড়ান মোচড়ান কষ্টে, আমিও যে ভেংগে চুড়ে খান খান হই। মুষড়ে যাই আমি, তোমার অপমানে। তোমার ব্যাথা বেদনায় ভারাক্রান্ত হই। তোমার ভাললাগায় গুনগুনিয়ে উঠি আর তোমার ভালবাসায় হই অংশীদার।

আমাকে সবাই এই এক নামেই তো ডাকো, মন বলে। দুই অক্ষরের ছোট্ট একটা নাম। একেবারেই আমার মনের মত, আমার নাম টি। আমি পৃথিবীজুড়ে থাকা সকল মানবকূলের অংশীভূত। নারী পুরুষ ভেদাভেদ নেই আমার। তবে নারী পুরুষ ভেদে এই আমায় কেউ কেউ কখনও কোমল, কখনও বা কঠিন বলে!19894535_10214598852193249_3702344125314758611_n

নারী মন আর পুরুষ মনের তফাৎ আসলে আপেক্ষিক। মানুষ হিসেবে তাদের মনের ব্যাপ্তি হয়ত এক, কিন্তু প্রকাশ আলাদা। আজ তুমি জানতে চাইলে বলে, শুধু নারীর মন নিয়ে, অল্প কিছু মন কথাই বলছি শোন।

তুমি জেগে ওঠ, গর্জে ওঠ, শোন তোমার মনের কথা। মনকে শোন, মনকে বোঝ। কেউ বুঝবে না তোমার মনকে, যদি তুমি নিজে তোমার মনকে না বোঝ, না জানো। তুমি সেটাই করো, যা তুমি চাও। তুমি সেটাই পাও যা তোমার প্রাপ্য। মনকে বুঝিয়ে চলো না, পৃথিবীকে বুঝিয়ে দাও তুমি কে!? তুমি কি!

দাঁড়াও মাথা উঁচু করে। দেখিয়ে দাও তুমি অনন্যা, তুমিই অন্যতমা। আলাদা নও এক তুমি, সকলের মাঝে একজন। নিজেকে শোন, অন্যকে নয়। নিজকে জানো, পরকে নয়। বলো শুধু সকলকে, একা নিজেকে নয়। চেয়ে নয়, আদায় কর যা তোমার।

রুখে দাঁড়াও, ঘুরে তাকাও। আর নয় আগলে রাখা, নয় আর সামলে চলা, নিজেকে। আটকিয়ে রেখো না নিজেকে আর কোন বলয়ে। সময় এসেছে এবার নিজকে দেয়ার। দাও কিছুটা সময় এবার আপনাকে। ভালবাসো একটু হলেও এবার নিজেকে।

তুমি যেমন ফুলের মত কোমল, প্রয়োজনে ইস্পাত কঠিন হয়ে দেখাও। তোমার ধৈর্য্য আর সহ্যের বাঁধ ভেঙে দাও, যদি তুমি হারাতে থাক কালের অতলে। নিজেকে আগলে রাখ, ভালবেসে।

নারী তুমি জন্ম নিলে কন্যা হয়ে, হলে জায়া থেকে জননী। মনে রেখ, তুমি বদলাওনি একটুখানি। সবার আগে তুমি মানুষ, তারপর নারী।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে