আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > আন্তর্জাতিক > আল-জাজিরা বন্ধের সিদ্ধান্ত মিডিয়া স্বাধীনতার প্রতি হুমকি: জাতিসংঘ

আল-জাজিরা বন্ধের সিদ্ধান্ত মিডিয়া স্বাধীনতার প্রতি হুমকি: জাতিসংঘ

aljazeera1

প্রতিচ্ছবি ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:

কাতার সংকটের পর আল-জাজিরা সংবাদমাধ্যম বন্ধের সিদ্বান্ত গণমাধ্যমের বাক স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে মন্তব্য করেছে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন।

গত ৫ জুন জঙ্গিবাদে সমর্থন দেওয়ার অভিযোগে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দেয় মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ। এর প্রেক্ষিতে দেশগুলো ‌১৩টি শর্ত দেয় কাতারকে। এরমধ্যে একটি শর্ত হলো আল-জাজিরা বন্ধ করে দেওয়া। তাদের মতে এই সংবাদ মাধ্যম পক্ষপাতমূলক সাম্প্রদায়িক খবর প্রকাশ করে সন্ত্রাসবাদের সৃষ্টি করে। আরব দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ ইস্যু নিয়েও নাক গলায় বলে অভিযোগ উঠে। জঙ্গিবাদের মদদ দিতে এই মাধ্যম কাজ করে যাচ্ছে। তবে আল জাজিরা এসব অস্বীকার করে আসছে। এবার কাতারের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অংশ হিসেবে সেই সংবাদমাধ্যমটি বন্ধ করে দেওয়ার শর্ত দিয়েছে সৌদি আরব, মিসর, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইন।

আল-জাজিরা বিশ্বের প্রভাবশালী প্রধান ধারার সংবাদমাধ্যমগুলোর একটি। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর দীর্ঘদিনের বিবাদের উৎস এই সংবাদমাধ্যম।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের বিশেষজ্ঞরা সবার সমান অধিকার নিয়ে কথা বলেন। সংস্থাটির বাক স্বাধীনতা বিষয়ক দূত হিসেবে কাজ করছেন ডেভিডকায়ী। তিনি আল-জাজিরা বন্ধের শর্ত প্রত্যাখ্যান করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ডেভিড কায়ি বলেছেন, কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটি বন্ধের শর্ত ‘মিডিয়ার স্বাধীনতার ক্ষেত্রে ভয়াবহ হুমকি’। আল-জাজিরা বন্ধের দাবি থেকে সরে আসতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। মিডিয়ার ওপর সেন্সরশিপ আরোপের প্রচেষ্টা বাতিল করে স্বাধীন ও মুক্ত গণমাধ্যম প্রচেষ্টাকে দৃঢ় করার তাগিদ দিয়েছেন এই মানবাধিকার কর্মী।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:
symphony

অনুরূপ সংবাদ

উপরে