আপনি আছেন
প্রচ্ছদ > জাতীয় > প্রধানমন্ত্রীর একক ক্ষমতার ভারসাম্য আনার প্রস্তাব: খালেদার ভিশন ২০৩০ ঘোষণা

প্রধানমন্ত্রীর একক ক্ষমতার ভারসাম্য আনার প্রস্তাব: খালেদার ভিশন ২০৩০ ঘোষণা

photo-1494419324
প্রতিচ্ছবি প্রতিবেদক
পর্যালোচনার মাধ্যমে প্রয়োজনে সাংবিধানিক সংস্কার এনে প্রধানমন্ত্রীর একক ক্ষমতায় ভারসাম্য আনা হবে। আজ বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ‘ভিশন ২০৩০’ শীর্ষক ভবিষ্যৎ সরকার পরিচালনা ও পরিকল্পনা ঘোষণায় এমনটাই জানালেন দলটির চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

bnp-vision-2030
এসময় ২০৩০ সালকে সামনে রেখে বিএনপির আরো নানান অঙ্গীকারের কথা শোনান সবাইকে। সংবাদ সম্মেলনে ক্ষমতায় গেলে ২০৩০ সালের মধ্যে আর কী কী করবেন তার অনেককিছুই তুলে ধরেন বিএনপি চেয়ারপারসন।
তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর একক ক্ষমতা একটি স্বৈরতান্ত্রিক একনায়কতন্ত্রের জন্ম দিয়েছে সেটা নিয়েও নতুন করে ভাবা হবে। সংবিধানের এককেন্দ্রিক চরিত্র অক্ষুণ্ন রেখে জাতীয় সংসদের উচ্চকক্ষ প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে আরো পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা হবে। নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা বাতিল এবং এধরনের আরো কিছু ব্যবস্থায় সংযোজন, প্রতিস্থাপন করা হবে। বিএনপি অগণতান্ত্রিক বিষয়গুলোর সাংবিধানিক সংশোধন করবে। জনগণের অধিকার পুন:স্থাপন করবে। জাতীয় স্বার্থ বিষয়ে বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।’
খালেদা জিয়া তার ভাষনে আরো বলেন, ‘২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগ সরকার সংবিধানের পঞ্চদশ ও ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে গণভোট প্রথা, তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা বাতিল করেছে এবং বিচারপতি অভিসংশনে সংসদের হাতে ক্ষমতা ন্যস্ত করেছে। এসব অগণতান্ত্রিক বিধান বাতিলে পর্যালোচনা করে প্রয়োজনে সাংবিধানিক সংস্কার আনা হবে।’

বিএনপি চেয়ারপার্সন বলেন, দায়িত্ব পালনের সুযোগ পলে সুপ্রম কোর্টর অধীন পৃথক সচিবালয় গঠন করা হবে। বিশেষ ক্ষমতা আইনসহ সকল কালা কানুন বাতিল করা হবে।
তিনি বলেন, ক্ষমতায় গেলে সংবধিান সংশোধন করে গণভোট ব্যবস্থা পুনপ্রর্বতন করবে এবং জাতীয় সংসদকে সকল কর্মকাণ্ডের  কেন্দ্র পরণিত করব।
খালেদার দাবি, তার দল দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ স্থিতিশীলতার জন্য বড় হুমকি।
ক্ষমতায় গেলে ওই ধরনরে কোনো র্কমকাণ্ড বরদাশত করা হবে না বলেো প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। এজন্য  জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টি করা হবে বলেো জানান খালেদা। জঙ্গিবাদের বরুদ্ধে ধর্মীয় শিক্ষার প্রচার এবং শান্ত সম্প্রীতির চেতনাকে সুসংহত করার কর্মকেৌশল প্রণয়ন করবে বিএনপি।

বিএনপি রাষ্ট্রক্ষমতায় আসলে প্রশাসন, বিচার বিভাগ, পুলিশ ও কারা ব্যবস্থাপনায় সংস্কার আনার মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও দক্ষতা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দেন খালেদা জিয়া। সংবধিান অনুযায়ী ন্যায়পালরে পদ প্রতিষ্ঠা করা হবে বলেো জানান খালেদা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন:

অনুরূপ সংবাদ

উপরে